ঢাকা ০৯:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মরন ফাঁদ হয়ে উঠেছে নাগরপুরের সহবতপুর ইউনিয়নের মাইলজানী বীজ্র

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৪৯:১৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ মে ২০১৮ ১৪ বার পড়া হয়েছে

 

আজিজুল হক বাবু নাগরপুর প্রতিনিধি :মরন ফাঁদ হয়ে উঠেছে নাগরপুরের সহবতপুর ইউনিয়নের মাইলজানী এলাকার বীজ্র। যে কোন সময় হতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

ভাঙ্গা ও অযোগ্য এই ব্রীজ ব্যবহার করে প্রতিদিন হাজারো মানুষ চলাচল করছে  জীবন এর ঝুঁকি নিয়ে! ভাড়রা ইউনিয়ন থেকে সহবতপুর বাজারে যাওয়ার বিকল্প পথ হিসেবে বহুল ব্যবহিত হয় এই প্রধান সড়কটি ।

সাবেক এম.পি তাহের এর এলাকা খ্যাত এই  ব্রীজটি সংস্কার এর অভাবে আজ প্রায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে! দশ পনেরো দিন যাবৎ এই ব্রীজ এর উপর দিয়ে  ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে স্থানীয়রা। স্থানীয় অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায়,বীজ্র এর জন্য পন্য পরিবহনে সমস্যা হচ্ছে,কারন বড় কোন ধরনের গাড়ি  চলাচল করতে পারচ্ছে না।মোটরসাইকেল,ইজি বাইক সহ বিভিন্ন যানবাহন এবং স্কুলগামী ছাত্রছাত্রীদের প্রতিনিয়ত চলাচল এই সড়কটিতে! স্থানীয়দের মতে ইতিমধ্যে কয়েকটি ছোট  দুর্ঘটনাও ঘটেছে।এই বিষয় নিয়ে এলাকার মেম্বর মিঠুন ও  সহবতপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান তোফায়েল মোল্লা  সাংবাদিকদের জানায় আগামী দুই একদিনের মধ্যে বীজ্রটির মেরামত এর কাজ করা হবে।

 

আসন্ন ঈদে দুর্ভোগ আরো বাড়বে বলে  আশংকা করছে স্থানীয়রা। অতিদ্রুত যথাযথ ব্যবস্হা গ্রহন করার জন্য কর্তৃপক্ষর কাছে  আশাবাদ ব্যক্ত করেছে এলাকাবাসী।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মরন ফাঁদ হয়ে উঠেছে নাগরপুরের সহবতপুর ইউনিয়নের মাইলজানী বীজ্র

আপডেট সময় : ০৬:৪৯:১৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২১ মে ২০১৮

 

আজিজুল হক বাবু নাগরপুর প্রতিনিধি :মরন ফাঁদ হয়ে উঠেছে নাগরপুরের সহবতপুর ইউনিয়নের মাইলজানী এলাকার বীজ্র। যে কোন সময় হতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

ভাঙ্গা ও অযোগ্য এই ব্রীজ ব্যবহার করে প্রতিদিন হাজারো মানুষ চলাচল করছে  জীবন এর ঝুঁকি নিয়ে! ভাড়রা ইউনিয়ন থেকে সহবতপুর বাজারে যাওয়ার বিকল্প পথ হিসেবে বহুল ব্যবহিত হয় এই প্রধান সড়কটি ।

সাবেক এম.পি তাহের এর এলাকা খ্যাত এই  ব্রীজটি সংস্কার এর অভাবে আজ প্রায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে! দশ পনেরো দিন যাবৎ এই ব্রীজ এর উপর দিয়ে  ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে স্থানীয়রা। স্থানীয় অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায়,বীজ্র এর জন্য পন্য পরিবহনে সমস্যা হচ্ছে,কারন বড় কোন ধরনের গাড়ি  চলাচল করতে পারচ্ছে না।মোটরসাইকেল,ইজি বাইক সহ বিভিন্ন যানবাহন এবং স্কুলগামী ছাত্রছাত্রীদের প্রতিনিয়ত চলাচল এই সড়কটিতে! স্থানীয়দের মতে ইতিমধ্যে কয়েকটি ছোট  দুর্ঘটনাও ঘটেছে।এই বিষয় নিয়ে এলাকার মেম্বর মিঠুন ও  সহবতপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান তোফায়েল মোল্লা  সাংবাদিকদের জানায় আগামী দুই একদিনের মধ্যে বীজ্রটির মেরামত এর কাজ করা হবে।

 

আসন্ন ঈদে দুর্ভোগ আরো বাড়বে বলে  আশংকা করছে স্থানীয়রা। অতিদ্রুত যথাযথ ব্যবস্হা গ্রহন করার জন্য কর্তৃপক্ষর কাছে  আশাবাদ ব্যক্ত করেছে এলাকাবাসী।