ঢাকা ০৪:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৮ জুলাই ২০২৪, ২৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সখীপুরে ৩৫ ছাত্রীকে বেত্রাঘাত, শিক্ষক বরখাস্ত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৪৭:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ মার্চ ২০১৮ ১৭ বার পড়া হয়েছে

টাঙ্গাইলের সখীপুরে শাহীন স্কুল (বড়চওনা শাখার) ৩৫ ছাত্রীকে বেত্রাঘাতের ঘটনায় এক শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে স্কুলের পরিচালনা পরিষদ, অভিভাবক ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ে এক জরুরি বৈঠকে ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।টাঙ্গাইলের শাহীন স্কুলের বড়চওনা শাখায় দশম শ্রেণির ক্লাসে গত ১৮ মার্চ সোমবার ওই ৩৫ জন ছাত্রীর হোমওয়ার্ক খাতা জমা দিতে দেরি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ক্লাস শিক্ষক শাহ আলম মিয়া ওই ৩৫ জন শিক্ষার্থীকেই বেত্রাঘাত করে। শিক্ষকের এ ভয়ঙ্কর আচরণে এ সময় শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে স্কুলের পরিচালনা পরিষদের এক জরুরি বৈঠকে ওই অভিযুক্ত শিক্ষক শাহ আলমকে এক মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানান, ‘ শিক্ষকের এমন আচরণে তারা হতভম্ব হয়েছেন।
এ ব্যাপারে জখমের শিকার শিক্ষার্থীরা জানান, ক্লাসে আসা মাত্রই শাহ আলম স্যার আমাদের মারপিট শুরু করে। আমাদের প্রত্যেককে দুই হাতের বাহুতে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালক জালাল উদ্দিন ও হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘অভিযুক্ত শিক্ষককে এক মাসের জন্য সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সখীপুরে ৩৫ ছাত্রীকে বেত্রাঘাত, শিক্ষক বরখাস্ত

আপডেট সময় : ০৩:৪৭:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ মার্চ ২০১৮

টাঙ্গাইলের সখীপুরে শাহীন স্কুল (বড়চওনা শাখার) ৩৫ ছাত্রীকে বেত্রাঘাতের ঘটনায় এক শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে স্কুলের পরিচালনা পরিষদ, অভিভাবক ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ে এক জরুরি বৈঠকে ওই শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।টাঙ্গাইলের শাহীন স্কুলের বড়চওনা শাখায় দশম শ্রেণির ক্লাসে গত ১৮ মার্চ সোমবার ওই ৩৫ জন ছাত্রীর হোমওয়ার্ক খাতা জমা দিতে দেরি হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ক্লাস শিক্ষক শাহ আলম মিয়া ওই ৩৫ জন শিক্ষার্থীকেই বেত্রাঘাত করে। শিক্ষকের এ ভয়ঙ্কর আচরণে এ সময় শিক্ষার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে স্কুলের পরিচালনা পরিষদের এক জরুরি বৈঠকে ওই অভিযুক্ত শিক্ষক শাহ আলমকে এক মাসের জন্য সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা জানান, ‘ শিক্ষকের এমন আচরণে তারা হতভম্ব হয়েছেন।
এ ব্যাপারে জখমের শিকার শিক্ষার্থীরা জানান, ক্লাসে আসা মাত্রই শাহ আলম স্যার আমাদের মারপিট শুরু করে। আমাদের প্রত্যেককে দুই হাতের বাহুতে বেত্রাঘাত করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালক জালাল উদ্দিন ও হুমায়ুন কবীর বলেন, ‘অভিযুক্ত শিক্ষককে এক মাসের জন্য সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।’