ঢাকা ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৮ জুলাই ২০২৪, ২৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হস্ত ও কুটিরশিল্পকেবিশ্ব বাজারেপৌছে দেয়া হবে – বানিজ্য প্রতিমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫৬:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ২৬ বার পড়া হয়েছে

সোনালী বাংরাদেশ নিউজ ডেস্ক: বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীআহসানুলইসলামটিটুবলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনাহস্তশিল্পকে বর্ষ পণ্য হিসেবে ঘোষণাকরেছেন। সেই ঘোষণারআলোকেআমরাএকটিগ্রামএকটিপণ্য এই শ্লোগানেসারাবাংলাদেশে তৃনমূলপর্যায়ে যে সকলকারিগররযেছেতাদেরকে মেলারমাধ্যমে একত্র করেতাদের তৈরিহস্তওকুটিরশিল্পকেআগামীঢাকাআন্তর্জাতিকবানিজ্য মেলায় স্টল করেদিয়ে উপস্থাপনকরারসুযোগকরেদিব। আমাদের মূল লক্ষ্যই হলোহস্ত ও কুটিরশিল্পকেআন্তর্জাতিকপর্যায়েনিয়েযাওয়া।
শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে টাঙ্গাইলের নাগরপুরসরকারিকলেজমাঠেউপজেলাপ্রশাসনআয়োজিতপাঁচদিনব্যাপী ক্ষুদ্রকুটিরশিল্প ও বৈশাখী মেলাউদ্বোধনীঅনুষ্ঠানেপ্রধানঅতিথির বক্তব্যে তিনিএসবকথাবলেন।
প্রতিমন্ত্রীআহসানুলইসলামটিটুবলেন, আগেমানুষ পেটের দায়ে ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্পেরকাজকরতোকিন্তু এটা যে একটাশিল্পএবংএর থেকে প্রচুর বৈদেশিকমুদ্রা অর্জনকরা সম্ভব সে বিষয়টামাথায়নিয়েইআমরা এই হস্ত ও কুটিরশিল্পীদের ভবিষ্যতে প্রশিক্ষণের আওতায়নিয়েআসব। আমরাবিশ্বাসকরিতারাযথাযথ প্রশিক্ষণ পেলেতাদের উৎপাদিতপণ্য আন্তর্জাতিকপর্যায়েনিয়ে যেতেপারবে। আরবর্তমানসরকারতাদের পাশে থেকে আন্তর্জাতিকবাজারেরপ্তানিকরতেসহযোগিতাকরবে।
বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীআরোবলেন, সবচেয়েবড়কথাহলোআমাদের কিছুহস্ত ও কুটিরশিল্পরয়েছে যেমনবাঁশ ও বেতশিল্প, মৃৎশিল্প, নকশিকাথা, গ্রামেরমা বোনদের হাতে তৈরিকাসুন্দি, আচার, মুড়ি, মরকিসহবিভিন্নশিল্পআজহারিয়ে যেতেবসেছে। এই শিল্পগুলোযাতেবিলুপ্তহয়েনাযায় সেজন্যইআজকের এই মেলারআয়োজন।
টাঙ্গাইলের তাঁতেরশাড়িসম্পর্কে প্রতিমন্ত্রীবলেন, তাঁতশাড়িনিয়েআমাদের বড়পরিকল্পনারয়েছে। তাঁতশাড়িরমূল কেন্দ্রহলোপাথরাইল। পাথরাইলকেআমরা পৌরসভাকরতেছি। পৌরসভারমাধ্যমে আমরাএটাকেসারাদেশে একমাত্র পৌরসভাহবেএকটাপণ্য ভিত্তিক পৌরসভা। এটাকেএগিয়েআমাদের পরিকল্পনাআছেকারিগরও শিল্পীদের বাঁচিয়েরাখাএবংএটাকেবাজারজাতকরারজন্য আমরাপাথরাইলে সেল সেন্টারকরবো, হাটকরারচিন্তাআছেসবার সাথে বসে যেভাবেতাঁতশাড়িকেপ্রচার ও প্রসারকরাযায় সেটারআমরাব্যবস্থা করবো।
নাগরপুরউপজেলানির্বাহীঅফিসার (ইউএনও) রেজা মো. গোলামমাসুমপ্রধানেরসভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, নাগরপুর থানারভারপ্রাপ্তকর্মকর্তাওসিজসিমউদ্দিন, উপজেলাআওয়ামীলীগের(ভারপ্রাপ্ত)সভাপতিআনিসুররহমান, পাকুটিয়াইউপি চেয়ারম্যানবীর মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিকুররহমানসিদ্দিক, সাবেককমান্ডারসুজায়েত হোসেন, সাংগঠনিকসম্পাদক ও সামিলাবাদ ইউনিয়নপরিষদের চেয়ারম্যানশাহিদুলইসলামঅপুপ্রমুখ। পর দিন রোববারসকালেপহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেন বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীআহসানুলইসলামটিটু। শোভাযাত্রাটিউপজেলাক্যামপাস থেকে শুরুহয়েনাগরপুরসরকারিকলেজের মেলা প্রাঙ্গণে শেষ হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

হস্ত ও কুটিরশিল্পকেবিশ্ব বাজারেপৌছে দেয়া হবে – বানিজ্য প্রতিমন্ত্রী

আপডেট সময় : ১১:৫৬:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

সোনালী বাংরাদেশ নিউজ ডেস্ক: বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীআহসানুলইসলামটিটুবলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনাহস্তশিল্পকে বর্ষ পণ্য হিসেবে ঘোষণাকরেছেন। সেই ঘোষণারআলোকেআমরাএকটিগ্রামএকটিপণ্য এই শ্লোগানেসারাবাংলাদেশে তৃনমূলপর্যায়ে যে সকলকারিগররযেছেতাদেরকে মেলারমাধ্যমে একত্র করেতাদের তৈরিহস্তওকুটিরশিল্পকেআগামীঢাকাআন্তর্জাতিকবানিজ্য মেলায় স্টল করেদিয়ে উপস্থাপনকরারসুযোগকরেদিব। আমাদের মূল লক্ষ্যই হলোহস্ত ও কুটিরশিল্পকেআন্তর্জাতিকপর্যায়েনিয়েযাওয়া।
শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকেলে টাঙ্গাইলের নাগরপুরসরকারিকলেজমাঠেউপজেলাপ্রশাসনআয়োজিতপাঁচদিনব্যাপী ক্ষুদ্রকুটিরশিল্প ও বৈশাখী মেলাউদ্বোধনীঅনুষ্ঠানেপ্রধানঅতিথির বক্তব্যে তিনিএসবকথাবলেন।
প্রতিমন্ত্রীআহসানুলইসলামটিটুবলেন, আগেমানুষ পেটের দায়ে ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্পেরকাজকরতোকিন্তু এটা যে একটাশিল্পএবংএর থেকে প্রচুর বৈদেশিকমুদ্রা অর্জনকরা সম্ভব সে বিষয়টামাথায়নিয়েইআমরা এই হস্ত ও কুটিরশিল্পীদের ভবিষ্যতে প্রশিক্ষণের আওতায়নিয়েআসব। আমরাবিশ্বাসকরিতারাযথাযথ প্রশিক্ষণ পেলেতাদের উৎপাদিতপণ্য আন্তর্জাতিকপর্যায়েনিয়ে যেতেপারবে। আরবর্তমানসরকারতাদের পাশে থেকে আন্তর্জাতিকবাজারেরপ্তানিকরতেসহযোগিতাকরবে।
বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীআরোবলেন, সবচেয়েবড়কথাহলোআমাদের কিছুহস্ত ও কুটিরশিল্পরয়েছে যেমনবাঁশ ও বেতশিল্প, মৃৎশিল্প, নকশিকাথা, গ্রামেরমা বোনদের হাতে তৈরিকাসুন্দি, আচার, মুড়ি, মরকিসহবিভিন্নশিল্পআজহারিয়ে যেতেবসেছে। এই শিল্পগুলোযাতেবিলুপ্তহয়েনাযায় সেজন্যইআজকের এই মেলারআয়োজন।
টাঙ্গাইলের তাঁতেরশাড়িসম্পর্কে প্রতিমন্ত্রীবলেন, তাঁতশাড়িনিয়েআমাদের বড়পরিকল্পনারয়েছে। তাঁতশাড়িরমূল কেন্দ্রহলোপাথরাইল। পাথরাইলকেআমরা পৌরসভাকরতেছি। পৌরসভারমাধ্যমে আমরাএটাকেসারাদেশে একমাত্র পৌরসভাহবেএকটাপণ্য ভিত্তিক পৌরসভা। এটাকেএগিয়েআমাদের পরিকল্পনাআছেকারিগরও শিল্পীদের বাঁচিয়েরাখাএবংএটাকেবাজারজাতকরারজন্য আমরাপাথরাইলে সেল সেন্টারকরবো, হাটকরারচিন্তাআছেসবার সাথে বসে যেভাবেতাঁতশাড়িকেপ্রচার ও প্রসারকরাযায় সেটারআমরাব্যবস্থা করবো।
নাগরপুরউপজেলানির্বাহীঅফিসার (ইউএনও) রেজা মো. গোলামমাসুমপ্রধানেরসভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, নাগরপুর থানারভারপ্রাপ্তকর্মকর্তাওসিজসিমউদ্দিন, উপজেলাআওয়ামীলীগের(ভারপ্রাপ্ত)সভাপতিআনিসুররহমান, পাকুটিয়াইউপি চেয়ারম্যানবীর মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিকুররহমানসিদ্দিক, সাবেককমান্ডারসুজায়েত হোসেন, সাংগঠনিকসম্পাদক ও সামিলাবাদ ইউনিয়নপরিষদের চেয়ারম্যানশাহিদুলইসলামঅপুপ্রমুখ। পর দিন রোববারসকালেপহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেন বানিজ্য প্রতিমন্ত্রীআহসানুলইসলামটিটু। শোভাযাত্রাটিউপজেলাক্যামপাস থেকে শুরুহয়েনাগরপুরসরকারিকলেজের মেলা প্রাঙ্গণে শেষ হয়।