ঢাকা ১০:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সখীপুরে তক্ষকসহ চার যুবক আটক ! তক্ষক অবমুক্ত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৩৬:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ মার্চ ২০১৮ ২০ বার পড়া হয়েছে

সখীপুর প্রতিনিধি :সখীপুরে একটি তক্ষকসহ চার যুবককে থানায় আটকের এক রাত পর ওই তক্ষককে অবমুক্ত করা হয়েছে। ২৩ মার্চ শুক্রবার দুপুরে সখীপুর থানার ওসি নাজমুল হক ভূঁইয়া টাঙ্গাইল বন বিভাগের সখীপুর উপজেলার বহেড়াতৈল রেঞ্জ কর্মকর্তা আতাউল মজিদের কাছে হস্তান্থর করেন। এ সময় ওই বন কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ অন্যান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন। দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলা কমপ্লেক্সের নাড়িকেল বাগানে ওই তক্ষকটি অবমুক্ত করা হয়।
খবর পেয়ে পুলিশ উপজেলার বগাপ্রতিমা গ্রামের বনাঞ্চল থেকে তক্ষকসহ চার যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। ওই চার যুবক জঙ্গল পরিস্কারের কাজ করার সময় তারা ওই তক্ষক আটক করে। পরে পুলিশ ওই তক্ষক অবমুক্ত করার পর আটককৃত চার যুবককে ছেড়ে দেয়। তারা হচ্ছে আন্দি গ্রামের মাঈন উদ্দিন (৩০), মহানন্দপুর গ্রামের রাইসুল ইসলাম (৩২), বগাপ্রতিমা গ্রামের নাজমুল আলম (২৪) ও সৌখিন মোড় এলাকার ফরিদ আহমেদ (২২)।

সখীপুর থানার ওসি নাজমুল হক ভূঁইয়া জানান, তক্ষকটি লেজ কাটা ছিল। ওই চার যুবক কৌতুহলের বশেই এ তক্ষকটি ধরেছিলো বলে তারা স্বীকার করে। পরে বন বিভাগের কাছে ওই তক্ষকটি হস্তান্তর করা হলে বন বিভাগের কর্মকর্তারা তক্ষকটিকে অবমুক্ত করে দেয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

সখীপুরে তক্ষকসহ চার যুবক আটক ! তক্ষক অবমুক্ত

আপডেট সময় : ১০:৩৬:৪৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৫ মার্চ ২০১৮

সখীপুর প্রতিনিধি :সখীপুরে একটি তক্ষকসহ চার যুবককে থানায় আটকের এক রাত পর ওই তক্ষককে অবমুক্ত করা হয়েছে। ২৩ মার্চ শুক্রবার দুপুরে সখীপুর থানার ওসি নাজমুল হক ভূঁইয়া টাঙ্গাইল বন বিভাগের সখীপুর উপজেলার বহেড়াতৈল রেঞ্জ কর্মকর্তা আতাউল মজিদের কাছে হস্তান্থর করেন। এ সময় ওই বন কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ অন্যান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন। দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলা কমপ্লেক্সের নাড়িকেল বাগানে ওই তক্ষকটি অবমুক্ত করা হয়।
খবর পেয়ে পুলিশ উপজেলার বগাপ্রতিমা গ্রামের বনাঞ্চল থেকে তক্ষকসহ চার যুবককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। ওই চার যুবক জঙ্গল পরিস্কারের কাজ করার সময় তারা ওই তক্ষক আটক করে। পরে পুলিশ ওই তক্ষক অবমুক্ত করার পর আটককৃত চার যুবককে ছেড়ে দেয়। তারা হচ্ছে আন্দি গ্রামের মাঈন উদ্দিন (৩০), মহানন্দপুর গ্রামের রাইসুল ইসলাম (৩২), বগাপ্রতিমা গ্রামের নাজমুল আলম (২৪) ও সৌখিন মোড় এলাকার ফরিদ আহমেদ (২২)।

সখীপুর থানার ওসি নাজমুল হক ভূঁইয়া জানান, তক্ষকটি লেজ কাটা ছিল। ওই চার যুবক কৌতুহলের বশেই এ তক্ষকটি ধরেছিলো বলে তারা স্বীকার করে। পরে বন বিভাগের কাছে ওই তক্ষকটি হস্তান্তর করা হলে বন বিভাগের কর্মকর্তারা তক্ষকটিকে অবমুক্ত করে দেয়।