ঢাকা ০১:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তরুণ ভোটার নিয়ে এগিয়ে রয়েছেন লিটন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৩০:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ জুলাই ২০১৮ ১৪ বার পড়া হয়েছে

চেতনা ডেস্ক: আসছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম প্রধান সংগঠক এ এইচ এম কামারুজ্জামান হেনার পুত্র, এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

তিনি রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের সাবেক সফল মেয়র।ইতোমধ্যে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার প্রচারণা শুরু হয়ে গেছে। প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের মুখে মুখে আলোচনায় প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী লিটন ও মোসাদ্দেক।

জানা যায়, প্রচার প্রচারণা ও জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বুলবুল থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে সরকারদলীয় প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটন।এবার বেশিরভাগ তরুণ ভোটারদের সমর্থন পাচ্ছেন লিটন। তারা জানান, লিটনের বাবা জাতীয় চার নেতার একজন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক। লিটন সর্বদা তরুণদের পাশে থেকেছেন। আওয়ামী লীগের এক বর্ধিত সভায় সম্প্রতি লিটন অঙ্গীকার করেছেন মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হলে কমপক্ষে পাঁচ লক্ষ বেকার তরুন -তরুনীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবেন।রাজশাহীর তরুণ প্রজন্মের মাঝে মার্জিত ও বিনয়ী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবেও পরিচিতি রয়েছে লিটনের। শিক্ষাগত যোগ্যতার দিক দিয়েও অন্য প্রার্থীদের তুলনায় এগিয়ে লিটন।এছাড়া লিটনের বড় মেয়ে আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সহ-সভাপতি এবং রাজশাহী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক। সেই সুবাধে রাজশাহীর তরুণ প্রজন্মের মাঝে বেশ জনপ্রিয় লিটনের মেয়ে।তরুণ প্রজন্মের বেশিরভাগের সমর্থন লিটনের পক্ষে যাওয়ার ক্ষেত্রে এই বিষয়টিও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছে।শিক্ষিত, মার্জিত এবং বিনয়ী লিটনকে ভোট দিবে বলে জানান তরুন ভোটাররা। সব কিছু মিলিয়ে সিংহভাগ তরুণ ভোটাররা লিটন কে মেয়র হিসেবে দেখতে চাইছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তরুণ ভোটার নিয়ে এগিয়ে রয়েছেন লিটন

আপডেট সময় : ০৩:৩০:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৪ জুলাই ২০১৮

চেতনা ডেস্ক: আসছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতিক নিয়ে মনোনয়ন পেয়েছেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম প্রধান সংগঠক এ এইচ এম কামারুজ্জামান হেনার পুত্র, এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

তিনি রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি কর্পোরেশনের সাবেক সফল মেয়র।ইতোমধ্যে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে প্রচার প্রচারণা শুরু হয়ে গেছে। প্রতিশ্রুতির ফুলঝুরি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের মুখে মুখে আলোচনায় প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী লিটন ও মোসাদ্দেক।

জানা যায়, প্রচার প্রচারণা ও জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে বুলবুল থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে সরকারদলীয় প্রার্থী খায়রুজ্জামান লিটন।এবার বেশিরভাগ তরুণ ভোটারদের সমর্থন পাচ্ছেন লিটন। তারা জানান, লিটনের বাবা জাতীয় চার নেতার একজন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক। লিটন সর্বদা তরুণদের পাশে থেকেছেন। আওয়ামী লীগের এক বর্ধিত সভায় সম্প্রতি লিটন অঙ্গীকার করেছেন মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হলে কমপক্ষে পাঁচ লক্ষ বেকার তরুন -তরুনীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করবেন।রাজশাহীর তরুণ প্রজন্মের মাঝে মার্জিত ও বিনয়ী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবেও পরিচিতি রয়েছে লিটনের। শিক্ষাগত যোগ্যতার দিক দিয়েও অন্য প্রার্থীদের তুলনায় এগিয়ে লিটন।এছাড়া লিটনের বড় মেয়ে আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সহ-সভাপতি এবং রাজশাহী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক। সেই সুবাধে রাজশাহীর তরুণ প্রজন্মের মাঝে বেশ জনপ্রিয় লিটনের মেয়ে।তরুণ প্রজন্মের বেশিরভাগের সমর্থন লিটনের পক্ষে যাওয়ার ক্ষেত্রে এই বিষয়টিও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছে।শিক্ষিত, মার্জিত এবং বিনয়ী লিটনকে ভোট দিবে বলে জানান তরুন ভোটাররা। সব কিছু মিলিয়ে সিংহভাগ তরুণ ভোটাররা লিটন কে মেয়র হিসেবে দেখতে চাইছেন।