ঢাকা ০৩:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৭ জুলাই ২০২৪, ২২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি কটুক্তির প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে মানববন্ধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৫২:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮ ২৩ বার পড়া হয়েছে

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী গোষ্ঠী কর্তৃক মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে কটুক্তি এবং সারাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছে মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানরা।আজ বৃহস্পতিবার সকালে ১০ টায় শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা ঐক্যমঞ্চ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড টাঙ্গাইল জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবার যৌথভাবে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসুচীর আয়োজন করে।

মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে কটুক্তিকারীদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবী জানান বক্তরা। একইসাথে সকল রাজাকারদের বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বাতিলের দাবী জানান মুক্তিযোদ্ধারা।

মানববন্ধন শেষে মিছিল সহকারে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। আগামীতে আরো কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন বক্তরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি কটুক্তির প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে মানববন্ধন

আপডেট সময় : ০৩:৫২:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৮

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী গোষ্ঠী কর্তৃক মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে কটুক্তি এবং সারাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছে মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানরা।আজ বৃহস্পতিবার সকালে ১০ টায় শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা ঐক্যমঞ্চ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড টাঙ্গাইল জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবার যৌথভাবে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসুচীর আয়োজন করে।

মহান মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে কটুক্তিকারীদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবী জানান বক্তরা। একইসাথে সকল রাজাকারদের বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বাতিলের দাবী জানান মুক্তিযোদ্ধারা।

মানববন্ধন শেষে মিছিল সহকারে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। আগামীতে আরো কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন বক্তরা।