ঢাকা ০৯:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মির্জাপুরে সন্ত্রাসি হামলায় আ.লীগ নেতাসহ আহত ৩

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:১২:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪ ১২ বার পড়া হয়েছে

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসি হামলায় উপজেলা আ.লীগের সদস্য হাজী আবুল হোসেন(৫০), স্ত্রী জেসমিন আক্তার(৪৫) ও তার ছেলে ফোয়াদ হোসেন হৃদয়কে (২৬) আহত হয়েছে।
সোমবার সকালে পৌর এলাকার পোষ্টকামুরী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
হাজী আবুল হোসেন পৌর এলাকার পোষ্টকামুরী গ্রামের মৃত কৃমৃর উদ্দিনের ছেলে।
এই ঘটনায় হাজী আবুল হোসেনের স্ত্রী জেসমিন আক্তার বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকাল আনুমানিক সাতটার দিকে ইসমাইল তার ঘরের ছাদের পানি আবুল হোসেনের ঘরের চালে দিচ্ছিলেন। আবুল হোসেনের স্ত্রী জেসমিন আক্তার নিষেধ করলে ইসমাইল তার স্ত্রী শিলা আক্তার ও মেয়ে জিম আক্তার লাঠি ও দা নিয়ে তার ওপর হামলা করে। তার আত্মচিৎকারে আবুল হোসেন ও ফোয়াদ হোসেন হৃদয় এগিয়ে গেলে তাদের ওপরও হামলা করে। এসময় ইসমাইল ধারালো দা দিয়ে আবুল হোসেন ও তার ছেলে ফোয়াদ হোসেন হৃদয়কে মাথার মধ্যে এলোপাথারি কুপিয়ে জখম করে। তাদের আত্মচিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন এসে তাদেরকে উদ্ধার করে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করেন।
খবর পেয়ে মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রামকৃষ্ণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং আলামত হিসেবে রক্তমাখা দা জব্দ করেছেন।
মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, হামলার ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মির্জাপুরে সন্ত্রাসি হামলায় আ.লীগ নেতাসহ আহত ৩

আপডেট সময় : ১২:১২:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসি হামলায় উপজেলা আ.লীগের সদস্য হাজী আবুল হোসেন(৫০), স্ত্রী জেসমিন আক্তার(৪৫) ও তার ছেলে ফোয়াদ হোসেন হৃদয়কে (২৬) আহত হয়েছে।
সোমবার সকালে পৌর এলাকার পোষ্টকামুরী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
হাজী আবুল হোসেন পৌর এলাকার পোষ্টকামুরী গ্রামের মৃত কৃমৃর উদ্দিনের ছেলে।
এই ঘটনায় হাজী আবুল হোসেনের স্ত্রী জেসমিন আক্তার বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সোমবার সকাল আনুমানিক সাতটার দিকে ইসমাইল তার ঘরের ছাদের পানি আবুল হোসেনের ঘরের চালে দিচ্ছিলেন। আবুল হোসেনের স্ত্রী জেসমিন আক্তার নিষেধ করলে ইসমাইল তার স্ত্রী শিলা আক্তার ও মেয়ে জিম আক্তার লাঠি ও দা নিয়ে তার ওপর হামলা করে। তার আত্মচিৎকারে আবুল হোসেন ও ফোয়াদ হোসেন হৃদয় এগিয়ে গেলে তাদের ওপরও হামলা করে। এসময় ইসমাইল ধারালো দা দিয়ে আবুল হোসেন ও তার ছেলে ফোয়াদ হোসেন হৃদয়কে মাথার মধ্যে এলোপাথারি কুপিয়ে জখম করে। তাদের আত্মচিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন এসে তাদেরকে উদ্ধার করে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করেন।
খবর পেয়ে মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) রামকৃষ্ণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন এবং আলামত হিসেবে রক্তমাখা দা জব্দ করেছেন।
মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, হামলার ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।