ঢাকা ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মির্জাপুরে রাতের আঁধারে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:২৪:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪ ১০ বার পড়া হয়েছে

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নুরুল ইসলাম নুরুল (৩৮) নামে এক কৃষককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বানাইল ইউনিয়নের বাদে হালালিয়া ঘোনাপাড়া গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।
নুরুল ইসলাম ওই গ্রামের রবি মিয়ার ছেলে।
শুক্রবার ভোরে পুলিশ তার মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছেন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নুরুল ইসলাম নুরুল পার্শ্ববর্তী উফুল্কী গ্রামের গদু মাতাব্বরের মেয়ের জামাই। তার স্ত্রীর বড় ভাই মোতালেব হোসেনের বাদেহালালিয়া গ্রামে বোরো আবাদের একটি প্রজেক্ট রয়েছে।
নুরুল ইসলাম রাতে ওই প্রজেক্টের সেচপাম্প চালাতেন। প্রতি রাতের মতো বৃহস্পতিবার রাতেও তিনি বোরো জমিতে পানি দেওয়ার কাজ করছিলেন।
রাত একটার দিকে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় পাশের বাড়ির লোকজন তার চিৎকারের শব্দ পেলে তারা চোর চোর বলে এলাকাবাসীকে জাগিয়ে তুলেন। পরে তারা ওই সেচপাম্পের কাছে গিয়ে নুরল ইসলামের রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে মির্জাপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রেজাউল করিম বলেন, নূরলের মৃত দেহটি ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে । এ বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়া চলমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মির্জাপুরে রাতের আঁধারে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

আপডেট সময় : ০৬:২৪:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নুরুল ইসলাম নুরুল (৩৮) নামে এক কৃষককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বানাইল ইউনিয়নের বাদে হালালিয়া ঘোনাপাড়া গ্রামে এ হত্যার ঘটনা ঘটে।
নুরুল ইসলাম ওই গ্রামের রবি মিয়ার ছেলে।
শুক্রবার ভোরে পুলিশ তার মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছেন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নুরুল ইসলাম নুরুল পার্শ্ববর্তী উফুল্কী গ্রামের গদু মাতাব্বরের মেয়ের জামাই। তার স্ত্রীর বড় ভাই মোতালেব হোসেনের বাদেহালালিয়া গ্রামে বোরো আবাদের একটি প্রজেক্ট রয়েছে।
নুরুল ইসলাম রাতে ওই প্রজেক্টের সেচপাম্প চালাতেন। প্রতি রাতের মতো বৃহস্পতিবার রাতেও তিনি বোরো জমিতে পানি দেওয়ার কাজ করছিলেন।
রাত একটার দিকে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ সময় পাশের বাড়ির লোকজন তার চিৎকারের শব্দ পেলে তারা চোর চোর বলে এলাকাবাসীকে জাগিয়ে তুলেন। পরে তারা ওই সেচপাম্পের কাছে গিয়ে নুরল ইসলামের রক্তাক্ত দেহ পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে মির্জাপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রেজাউল করিম বলেন, নূরলের মৃত দেহটি ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে । এ বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়া চলমান।