ঢাকা ০৪:২৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৮ জুলাই ২০২৪, ২৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাগরপুরে ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:০৪:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মে ২০২৪ ১৫ বার পড়া হয়েছে

oppo_1024

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক: গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে আলোচিত লুৎফর হত্যার প্রকৃত খুনিদের বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিহতের পরিবার।

শুক্রবার নিহত লুৎফরের নিজ বাড়িতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সম্মেলনে নিহত লূৎফরের বাবা মো. আশরাফ আলী ও মা আউশি বেগম বলেন , আমার ছেলেকে সহবতপুর ইউনিয়নের শালিয়ারা গ্রামের ময়নাল সিকদারের ছেলে নজরুল ও তার লোকজন পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। আমরা এই হত্যাকান্ডের বিচার চাই। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত নিহত লুৎফরের বড় উর্মী আক্তার ও ছোট মেয়ে লীমা আক্তার কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমরা আমাদের পিতার খুনিদের শাস্তি চাই। আর কোন ছেলে মেয়ে যেন আমাদের মত এতিম না হয়। নিহতের স্ত্রী হুছনা বেগম সংবাদ সম্মেলনে প্রশাসনের কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে প্রকৃত দোষীর সর্ববোচ্চ শাস্তির দাবী করেন।
এসময় জনপ্রতিনিধি সাবেক চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান আনিস, সমাজ সেবক মো. আব্দুল আলিম দুলাল, আবুল কাশেম, ইউপি সদস্য মো. ইব্রাহীম, আব্দুস সামাদ, নিহতের চাচাতো ভাই মো. আনোয়ার হোসেন ও শহিদুল ইসলামসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, গত ২৯ এপ্রিল রবিবার রাতে সহবতপুর বাজারে প্রবাসী লুৎফরকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

নাগরপুরে ছেলে হত্যার বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

আপডেট সময় : ০৭:০৪:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মে ২০২৪

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক: গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে আলোচিত লুৎফর হত্যার প্রকৃত খুনিদের বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নিহতের পরিবার।

শুক্রবার নিহত লুৎফরের নিজ বাড়িতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সম্মেলনে নিহত লূৎফরের বাবা মো. আশরাফ আলী ও মা আউশি বেগম বলেন , আমার ছেলেকে সহবতপুর ইউনিয়নের শালিয়ারা গ্রামের ময়নাল সিকদারের ছেলে নজরুল ও তার লোকজন পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। আমরা এই হত্যাকান্ডের বিচার চাই। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত নিহত লুৎফরের বড় উর্মী আক্তার ও ছোট মেয়ে লীমা আক্তার কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমরা আমাদের পিতার খুনিদের শাস্তি চাই। আর কোন ছেলে মেয়ে যেন আমাদের মত এতিম না হয়। নিহতের স্ত্রী হুছনা বেগম সংবাদ সম্মেলনে প্রশাসনের কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে প্রকৃত দোষীর সর্ববোচ্চ শাস্তির দাবী করেন।
এসময় জনপ্রতিনিধি সাবেক চেয়ারম্যান মো. আনিছুর রহমান আনিস, সমাজ সেবক মো. আব্দুল আলিম দুলাল, আবুল কাশেম, ইউপি সদস্য মো. ইব্রাহীম, আব্দুস সামাদ, নিহতের চাচাতো ভাই মো. আনোয়ার হোসেন ও শহিদুল ইসলামসহ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, গত ২৯ এপ্রিল রবিবার রাতে সহবতপুর বাজারে প্রবাসী লুৎফরকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।