ঢাকা ১২:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

তিন বছরের শিশুকে টাঙ্গাইলে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:১৩:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৭ মার্চ ২০১৮ ১২ বার পড়া হয়েছে

বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইলে সদর উপজেলার পোড়াবাড়ি ইউনিয়নের চর রক্ষিত বেলতা গ্রামে সামাদ আলী (৫০) নামের এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠছে।

ওই শিশুকে বৃহস্পতিবার দুপুরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত সামাদকে আটক করেছে। সামাদ মিয়া একই এলাকার কাশেম মন্ডলের ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ওই শিশুটির পাশের বাড়ির সামাদ বুধবার দুপুরে অপর এক শিশুর মাধ্যমে তাকে বাড়িতে ডেকে নেয়। পরে সামাদ তার নিজ বাড়িতে ওই তিন বছরের শিশুকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটিকে অনেকক্ষন বাড়িতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখোঁজি শুরু করে। পরে সামাদের বাড়ির ভিতরে শিশুটিকে কান্না করতে দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। এছাড়া তার কাপড় চোপড় ভেজা অবস্থায় দেখতে পান তারা। পরে বিষয়টি স্থানীয় লোকজনকে জানালে তারা সামাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। কিন্তু তা বাস্তবায়ন না করা হলে বৃহস্পতিবার শিশুটিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শিশুটির পিতা কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, ‘আমি এ ঘটনায় বিচার চাই। অভিযুক্ত সামাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।’

টাঙ্গাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সায়েদুর রহমান বলেন, পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষনের অভিযোগে সামাদকে আটক করেছে।

এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

তিন বছরের শিশুকে টাঙ্গাইলে ধর্ষণ, অভিযুক্ত আটক

আপডেট সময় : ১০:১৩:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৭ মার্চ ২০১৮

বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইলে সদর উপজেলার পোড়াবাড়ি ইউনিয়নের চর রক্ষিত বেলতা গ্রামে সামাদ আলী (৫০) নামের এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠছে।

ওই শিশুকে বৃহস্পতিবার দুপুরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত সামাদকে আটক করেছে। সামাদ মিয়া একই এলাকার কাশেম মন্ডলের ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ওই শিশুটির পাশের বাড়ির সামাদ বুধবার দুপুরে অপর এক শিশুর মাধ্যমে তাকে বাড়িতে ডেকে নেয়। পরে সামাদ তার নিজ বাড়িতে ওই তিন বছরের শিশুকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটিকে অনেকক্ষন বাড়িতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন খোঁজাখোঁজি শুরু করে। পরে সামাদের বাড়ির ভিতরে শিশুটিকে কান্না করতে দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। এছাড়া তার কাপড় চোপড় ভেজা অবস্থায় দেখতে পান তারা। পরে বিষয়টি স্থানীয় লোকজনকে জানালে তারা সামাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়। কিন্তু তা বাস্তবায়ন না করা হলে বৃহস্পতিবার শিশুটিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শিশুটির পিতা কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, ‘আমি এ ঘটনায় বিচার চাই। অভিযুক্ত সামাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি।’

টাঙ্গাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সায়েদুর রহমান বলেন, পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষনের অভিযোগে সামাদকে আটক করেছে।

এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।