ঢাকা ০২:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইলে পুরাতন প্রশ্নপত্রে ২০ মিনিট পরীক্ষা!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৪৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮ ১৮ বার পড়া হয়েছে

বাসাইল প্রতিনিধিঃ এইচএসসি’র হিসাব বিজ্ঞান ২য় পত্রের পরীক্ষায় পুরাতন (২০১৬) সালের বহুনির্বাচনী প্রশ্নপত্রে প্রায় ২০মিনিট পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীরা প্রশ্ন হাতে পেয়ে বহুনির্বাচনী উত্তরপত্রের ঘরটি পূরণ করা শুরু করে। প্রায় ২০মিনিট পর এক শিক্ষার্থীর নজরে আসে ২০১৬ সালের প্রশ্নে পরীক্ষা দেয়ার বিষয়টি। তাৎক্ষণিক ওই শিক্ষার্থী দায়িত্বরত শিক্ষককে জানান। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার ( ২৫ এপ্রিল) সকালে টাঙ্গাইলের বাসাইল এমদাদ হামিদা ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে। ঘটনাটি শুনে তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না ওই কেন্দ্রে উপস্থিত হন। পরে তিনি উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলে ৭ মিনিট সময় বাড়িয়ে দেন। এ কেন্দ্রে সকালে বাসাইল জোবেদা রুবেয়া মহিলা কলেজ, করটিয়া আবেদা খানম গার্লস হাইস্কুল এন্ড কলেজ ও শহীদ রওশন আলী কলেজের ৮৪জন শিক্ষার্থী দুইটি কক্ষে হিসাব বিজ্ঞান ২য় পত্রের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে প্রায় ২০জন শিক্ষার্থীর হাতে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট তুলে দেয়া হয়।
এ কেন্দ্রের ২০ নম্বর কক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পরীক্ষার্থী বলেন, আমাদের কক্ষে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট প্রশ্নে প্রায় ২০ মিনিট পরীক্ষা নেয়া হয়। এরপর বিষয়টি নজরে আসলে দায়িত্বরত শিক্ষককে জানানো হয়। পরে ৭মিনিট পরীক্ষার সময় বাড়িয়ে দেন। একই কেন্দ্রের ১৪ নম্বর কক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পরীক্ষার্থী বলেন, প্রায় ১৫মিনিট পর প্রশ্ন পরিবর্তন করা হয়। পরে ৭মিনিট সময় বাড়ানো হয়।

বাসাইল এমদাদ হামিদা ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও প্রিন্সিপাল ড. হাবিবুর রহমান বলেন, ভুলক্রমে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট প্রশ্ন দেয়া হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেটি পরিবর্তন করা হয়।

এ ব্যাপারে বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না বলেন, বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিক কেন্দ্রে গিয়ে প্রশ্ন পরিবর্তন করা হয়। উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলে ৭মিনিট সময় বাড়িয়ে দেয়া হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

টাঙ্গাইলে পুরাতন প্রশ্নপত্রে ২০ মিনিট পরীক্ষা!

আপডেট সময় : ০৮:৪৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৮

বাসাইল প্রতিনিধিঃ এইচএসসি’র হিসাব বিজ্ঞান ২য় পত্রের পরীক্ষায় পুরাতন (২০১৬) সালের বহুনির্বাচনী প্রশ্নপত্রে প্রায় ২০মিনিট পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীরা প্রশ্ন হাতে পেয়ে বহুনির্বাচনী উত্তরপত্রের ঘরটি পূরণ করা শুরু করে। প্রায় ২০মিনিট পর এক শিক্ষার্থীর নজরে আসে ২০১৬ সালের প্রশ্নে পরীক্ষা দেয়ার বিষয়টি। তাৎক্ষণিক ওই শিক্ষার্থী দায়িত্বরত শিক্ষককে জানান। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার ( ২৫ এপ্রিল) সকালে টাঙ্গাইলের বাসাইল এমদাদ হামিদা ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে। ঘটনাটি শুনে তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না ওই কেন্দ্রে উপস্থিত হন। পরে তিনি উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলে ৭ মিনিট সময় বাড়িয়ে দেন। এ কেন্দ্রে সকালে বাসাইল জোবেদা রুবেয়া মহিলা কলেজ, করটিয়া আবেদা খানম গার্লস হাইস্কুল এন্ড কলেজ ও শহীদ রওশন আলী কলেজের ৮৪জন শিক্ষার্থী দুইটি কক্ষে হিসাব বিজ্ঞান ২য় পত্রের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে প্রায় ২০জন শিক্ষার্থীর হাতে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট তুলে দেয়া হয়।
এ কেন্দ্রের ২০ নম্বর কক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পরীক্ষার্থী বলেন, আমাদের কক্ষে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট প্রশ্নে প্রায় ২০ মিনিট পরীক্ষা নেয়া হয়। এরপর বিষয়টি নজরে আসলে দায়িত্বরত শিক্ষককে জানানো হয়। পরে ৭মিনিট পরীক্ষার সময় বাড়িয়ে দেন। একই কেন্দ্রের ১৪ নম্বর কক্ষের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পরীক্ষার্থী বলেন, প্রায় ১৫মিনিট পর প্রশ্ন পরিবর্তন করা হয়। পরে ৭মিনিট সময় বাড়ানো হয়।

বাসাইল এমদাদ হামিদা ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও প্রিন্সিপাল ড. হাবিবুর রহমান বলেন, ভুলক্রমে ২০১৬ সালের বহুনির্বাচনী ‘গ’ সেট প্রশ্ন দেয়া হয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই সেটি পরিবর্তন করা হয়।

এ ব্যাপারে বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুন নাহার স্বপ্না বলেন, বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিক কেন্দ্রে গিয়ে প্রশ্ন পরিবর্তন করা হয়। উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলে ৭মিনিট সময় বাড়িয়ে দেয়া হয়।