ঢাকা ০৪:২৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ০৬ জুলাই ২০২৪, ২২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ভিজিএফ কার্ডের কথা বলে গৃহবধুকে ধর্ষন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:১৬:৩২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৮ ১৮ বার পড়া হয়েছে

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ভিজিএফ কার্ড দেয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গৃহ্বধুকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মির্জাপুর উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের কোর্ট বহুরিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় ধর্ষিত গৃহবধু বাদী হয়ে ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলী (৪০) বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষনের মামলা করেছেন। মামলা নম্বর ১৩৬, তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৮।

মামলার বিবরণ জানা গেছে, গত ১১ এপ্রিল রাত আনুমানিক সাড়ে নয়টার দিকে বহুরিয়া ইউনিয়নের কোর্ট বহুরিয়া গ্রামের আমিরুদ্দিনের অসহায় স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে (৩৫) ভিজিএফ কার্ড দেয়ার কথা বলে বহুরিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার ইদ্রিস আলী বাড়ির পূর্বপাশে নদীর ধারে ডেকে নেয়। পরে সেখানে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় তিনি আর্তচিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ধর্ষক ইদ্রিস আলী পালিয়ে যায়।

ঘটনার পরদিন ১২ এপ্রিল সকালে গৃহবধু ফাতেমা বেগম মির্জাপুর থানায় এসে মেম্বারের বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ দায়ের করতে চাইলে পুলিশ তা গ্রহণ না করে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে তিনি টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে করা ধর্ষনের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অভিযোগকারীর সঙ্গে তার শরিকী সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধ মীসাংসায় তিনি সন্তোষ্ট হতে না পেরে তার বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ করেছেন বলে তিনি জানান।

মির্জাপুর থানা অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক বলেন আমার জানামতে মির্জাপুর থানায় ধর্ষনের অভিযোগ করতে ওই মহিলা আসেন নি। আসলে অবশ্যই অভিযোগ নিয়ে যথাযথ আইনী প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হতো বলে তিনি জানান।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ভিজিএফ কার্ডের কথা বলে গৃহবধুকে ধর্ষন

আপডেট সময় : ০৯:১৬:৩২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৮ এপ্রিল ২০১৮

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ভিজিএফ কার্ড দেয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গৃহ্বধুকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মির্জাপুর উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের কোর্ট বহুরিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় ধর্ষিত গৃহবধু বাদী হয়ে ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলী (৪০) বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষনের মামলা করেছেন। মামলা নম্বর ১৩৬, তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৮।

মামলার বিবরণ জানা গেছে, গত ১১ এপ্রিল রাত আনুমানিক সাড়ে নয়টার দিকে বহুরিয়া ইউনিয়নের কোর্ট বহুরিয়া গ্রামের আমিরুদ্দিনের অসহায় স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে (৩৫) ভিজিএফ কার্ড দেয়ার কথা বলে বহুরিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার ইদ্রিস আলী বাড়ির পূর্বপাশে নদীর ধারে ডেকে নেয়। পরে সেখানে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় তিনি আর্তচিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ধর্ষক ইদ্রিস আলী পালিয়ে যায়।

ঘটনার পরদিন ১২ এপ্রিল সকালে গৃহবধু ফাতেমা বেগম মির্জাপুর থানায় এসে মেম্বারের বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ দায়ের করতে চাইলে পুলিশ তা গ্রহণ না করে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে তিনি টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে করা ধর্ষনের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অভিযোগকারীর সঙ্গে তার শরিকী সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধ মীসাংসায় তিনি সন্তোষ্ট হতে না পেরে তার বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ করেছেন বলে তিনি জানান।

মির্জাপুর থানা অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক বলেন আমার জানামতে মির্জাপুর থানায় ধর্ষনের অভিযোগ করতে ওই মহিলা আসেন নি। আসলে অবশ্যই অভিযোগ নিয়ে যথাযথ আইনী প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হতো বলে তিনি জানান।