ঢাকা ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৭ জুলাই ২০২৪, ২২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চার বলে ইতিহাস মাশরাফির

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৪:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ মার্চ ২০১৮ ২০ বার পড়া হয়েছে

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মঙ্গলবার আবাহনী লিমিটেডের হয়ে অগ্রণী ব্যাংকের বিপক্ষে এই ইতিহাস গড়েন মাশরাফি। ফতুল্লায় শেষ ওভারে জয়ের জন্য অগ্রণী ব্যাংকের প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। উইকেট ছিল চারটি। প্রথম বলে আব্দুর রাজ্জাক নিয়েছেন একটি রান। পরের চার বলেই চার উইকেট নিয়ে ম্যাচ শেষ!

আবাহনীর মূল শঙ্কা হয়ে দাঁড়ানো ধীমান ঘোষকে ফিরিয়ে শুরু। ২৭ বলে ৪৬ রান করে ধীমান ক্যাচ দেন জয়রাজ শেখকে। পরের বলে প্রিয় বন্ধু রাজ্জাককে শিকার করলেন নাজমুল হাসান শান্তর ক্যাচ বানিয়ে।পরের বলে শফিউল ইসলাম ক্যাচ দিলেন সাইফ হাসানকে। মাশরাফি প্রথমবার পেলেন হ্যাটট্রিকের স্বাদ। শেষ নয় ওখানেই। ওভারের পঞ্চম বলে কটবিহাইন্ড ফজলে রাব্বি।

সব মিলিয়ে ৯.৫ ওভারে ৪৪ রান দিয়ে ৬ উইকেট। লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে চতুর্থবার পেলেন ৫ উইকেট। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং অবশ্য হয়নি। ২০০৬ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডেতে ২৬ রানে ৬ উইকেটই রয়ে গেছে সেরা।

লিস্ট ‘এ’-তে টানা চার বলে উইকেট এবারই প্রথম।

মাশরাফির আগে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের ইতিহাসে চার বলে চার উইকেট নিয়েছিলেন আর কেবল সাত জন।সব মিলিয়ে এবারের ঢাকা লিগে ৮ ম্যাচে মাশরাফির উইকেট হলো ২৫টি। চার ও পাঁচ উইকেট দুবার করে। মাশরাফিকে দিয়ে এবারের ঢাকা লিগে হ্যাটট্রিক হলো তিনটি। সব মিলিয়ে লিস্ট ‘এ’ মর্যাদা পাওয়ার পর ঢাকা লিগে হ্যাটট্রিক হলো মোট ৯টি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

চার বলে ইতিহাস মাশরাফির

আপডেট সময় : ১২:০৪:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ মার্চ ২০১৮

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে মঙ্গলবার আবাহনী লিমিটেডের হয়ে অগ্রণী ব্যাংকের বিপক্ষে এই ইতিহাস গড়েন মাশরাফি। ফতুল্লায় শেষ ওভারে জয়ের জন্য অগ্রণী ব্যাংকের প্রয়োজন ছিল ১৩ রান। উইকেট ছিল চারটি। প্রথম বলে আব্দুর রাজ্জাক নিয়েছেন একটি রান। পরের চার বলেই চার উইকেট নিয়ে ম্যাচ শেষ!

আবাহনীর মূল শঙ্কা হয়ে দাঁড়ানো ধীমান ঘোষকে ফিরিয়ে শুরু। ২৭ বলে ৪৬ রান করে ধীমান ক্যাচ দেন জয়রাজ শেখকে। পরের বলে প্রিয় বন্ধু রাজ্জাককে শিকার করলেন নাজমুল হাসান শান্তর ক্যাচ বানিয়ে।পরের বলে শফিউল ইসলাম ক্যাচ দিলেন সাইফ হাসানকে। মাশরাফি প্রথমবার পেলেন হ্যাটট্রিকের স্বাদ। শেষ নয় ওখানেই। ওভারের পঞ্চম বলে কটবিহাইন্ড ফজলে রাব্বি।

সব মিলিয়ে ৯.৫ ওভারে ৪৪ রান দিয়ে ৬ উইকেট। লিস্ট ‘এ’ ক্যারিয়ারে চতুর্থবার পেলেন ৫ উইকেট। ক্যারিয়ার সেরা বোলিং অবশ্য হয়নি। ২০০৬ সালে কেনিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডেতে ২৬ রানে ৬ উইকেটই রয়ে গেছে সেরা।

লিস্ট ‘এ’-তে টানা চার বলে উইকেট এবারই প্রথম।

মাশরাফির আগে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটের ইতিহাসে চার বলে চার উইকেট নিয়েছিলেন আর কেবল সাত জন।সব মিলিয়ে এবারের ঢাকা লিগে ৮ ম্যাচে মাশরাফির উইকেট হলো ২৫টি। চার ও পাঁচ উইকেট দুবার করে। মাশরাফিকে দিয়ে এবারের ঢাকা লিগে হ্যাটট্রিক হলো তিনটি। সব মিলিয়ে লিস্ট ‘এ’ মর্যাদা পাওয়ার পর ঢাকা লিগে হ্যাটট্রিক হলো মোট ৯টি।