ঢাকা ০৬:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ০৬ জুলাই ২০২৪, ২২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঘরে লাশ মিলল সকালে, রাতে ফোনে ঝগড়া

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:২২:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ মার্চ ২০১৮ ১৫ বার পড়া হয়েছে

 

রাতে মোবাইল ফোনে ঝগড়া করে ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচিয়ে সীমা নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী আত্মহত্যা করেছে।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় সীমা আক্তার (২২) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (৭ মার্চ) সকালে উপজেলার পৌর এলাকার নোয়াগাঁও গ্রাম থেকে ওই গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, পৌর এলাকার কেরোয়া গ্রামের আ. হাইয়ের মেয়ে সীমার সঙ্গে ৪ বছর আগে নোয়াগাঁও গ্রামের মোখলেছুর রহমানের (মুকু) ছেলে মনির হোসেনের বিয়ে হয়। তাদের কোনো সন্তান নেই।

গত ৬ মাস আগে নোয়াগাওঁ গ্রামের আ. সাত্তার সাউদের ঘর ভাড়া নেয় সীমা। বুধবার সকালে সেখানেই তার গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় লাশ দেখতে পান স্থানীয়রা।

বাড়ির মালিক আ. ছাত্তার সাউদ জানান, রাতে মোবাইল ফোনে ঝগড়া করতে শোনেন সীমাকে। ভোরে তার স্ত্রী পাশের ঘরে থাকা সীমাকে নামাজ পড়ার জন্য ডাকতে দরজায় ধাক্কা দিলে দরজাটি খুলে যায়। পরে জানালার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচানো সীমার লাশ দেখা যায়।

সীমার বোন সুমী বেগম জানান, তার বোনের মৃত্যু রহস্যজনক। এর সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করার দাবি করেন তিনি।

এ ব্যাপারে এসআই মাসুদ আলম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

ঘরে লাশ মিলল সকালে, রাতে ফোনে ঝগড়া

আপডেট সময় : ১২:২২:০৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ মার্চ ২০১৮

 

রাতে মোবাইল ফোনে ঝগড়া করে ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচিয়ে সীমা নামে এক প্রবাসীর স্ত্রী আত্মহত্যা করেছে।

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় সীমা আক্তার (২২) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (৭ মার্চ) সকালে উপজেলার পৌর এলাকার নোয়াগাঁও গ্রাম থেকে ওই গৃহবধূর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, পৌর এলাকার কেরোয়া গ্রামের আ. হাইয়ের মেয়ে সীমার সঙ্গে ৪ বছর আগে নোয়াগাঁও গ্রামের মোখলেছুর রহমানের (মুকু) ছেলে মনির হোসেনের বিয়ে হয়। তাদের কোনো সন্তান নেই।

গত ৬ মাস আগে নোয়াগাওঁ গ্রামের আ. সাত্তার সাউদের ঘর ভাড়া নেয় সীমা। বুধবার সকালে সেখানেই তার গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় লাশ দেখতে পান স্থানীয়রা।

বাড়ির মালিক আ. ছাত্তার সাউদ জানান, রাতে মোবাইল ফোনে ঝগড়া করতে শোনেন সীমাকে। ভোরে তার স্ত্রী পাশের ঘরে থাকা সীমাকে নামাজ পড়ার জন্য ডাকতে দরজায় ধাক্কা দিলে দরজাটি খুলে যায়। পরে জানালার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় পেঁচানো সীমার লাশ দেখা যায়।

সীমার বোন সুমী বেগম জানান, তার বোনের মৃত্যু রহস্যজনক। এর সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করার দাবি করেন তিনি।

এ ব্যাপারে এসআই মাসুদ আলম জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর পাঠানো হয়েছে।