ঢাকা ০৩:৫৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালিহাতীতে প্রধান শিক্ষককে বাড়িতে ডেকে নিয়ে মারধর, থানায় মামলা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:২৪:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মে ২০২৪ ১৮ বার পড়া হয়েছে

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক:টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার শহীদ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রায়েজ উদ্দিনকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। গত সোমবার উপজেলার কোকডহরা ইউনিয়নের পোষণা গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে। গুরতর আহত অবস্থায় রায়েজ উদ্দিনকে টাঙ্গাইল সদর হাসপতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক রায়েজ উদ্দিনের স্ত্রী নাদিরা আক্তার বাদী হয়ে মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল ) ঘটনার মূলহোতা যুবদল নেতা আমিনুল ইসলাম ও সম্পদসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনকে আসামী করে কালিহাতী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার বাদী নাদিরা আক্তার জানান, কিছুদিন আগে  আমার স্বামীর সাথে প্রতিবেশি আমিনুল ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়। স্থানীয়রা বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।গত ২৯ এপ্রল সোমবার  আমার স্বামী রাতে এশার নামাজ পড়ছিলেন । এমন সময় আমিনুল তাঁর বাড়িতে ডেকে নিয়ে ভারাটে সন্ত্রাসী দিয়ে আমার স্বামীকে বেধড়ক মারপিট করে । স্থানীয়দের সহযোগীতায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এদিকে প্রধান শিক্ষক রায়েজ উদ্দিনের উপর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের দ্রত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল করিম।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আসাদুল ইসলাম জানান, আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

কালিহাতীতে প্রধান শিক্ষককে বাড়িতে ডেকে নিয়ে মারধর, থানায় মামলা

আপডেট সময় : ০৭:২৪:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মে ২০২৪

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক:টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার শহীদ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রায়েজ উদ্দিনকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে। গত সোমবার উপজেলার কোকডহরা ইউনিয়নের পোষণা গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে। গুরতর আহত অবস্থায় রায়েজ উদ্দিনকে টাঙ্গাইল সদর হাসপতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক রায়েজ উদ্দিনের স্ত্রী নাদিরা আক্তার বাদী হয়ে মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল ) ঘটনার মূলহোতা যুবদল নেতা আমিনুল ইসলাম ও সম্পদসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জনকে আসামী করে কালিহাতী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার বাদী নাদিরা আক্তার জানান, কিছুদিন আগে  আমার স্বামীর সাথে প্রতিবেশি আমিনুল ইসলামের কথা কাটাকাটি হয়। স্থানীয়রা বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।গত ২৯ এপ্রল সোমবার  আমার স্বামী রাতে এশার নামাজ পড়ছিলেন । এমন সময় আমিনুল তাঁর বাড়িতে ডেকে নিয়ে ভারাটে সন্ত্রাসী দিয়ে আমার স্বামীকে বেধড়ক মারপিট করে । স্থানীয়দের সহযোগীতায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এদিকে প্রধান শিক্ষক রায়েজ উদ্দিনের উপর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে জড়িতদের দ্রত গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল করিম।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আসাদুল ইসলাম জানান, আসামীদের গ্রেফতার করার জন্য আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।