শিরোনাম
টাঙ্গাইলে বাছিরন নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন Headline Bullet       টাঙ্গাইলে বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে মহৌষধি ‘ননী ফল’ Headline Bullet       কয়লা সংকট সমাধানের দাবিতে টাঙ্গাইলে ইট মালিক সমিতির মানববন্ধন Headline Bullet       ভূঞাপুরে ছোট ভাইকে বাঁচাতে লাঠির আঘাতে প্রাণ হারাল বড় ভাই, গ্রেফতার ৪ Headline Bullet       উৎসাহ ও উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে মির্জাপুর কম্ফিট কম্পোজিট নীট লি. এ শ্রমিকদের ভোট গ্রহন। Headline Bullet       বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে টাঙ্গাইল বালক দল চ্যাম্পিয়ন Headline Bullet       কালিহাতীর প্রাক্তন শিক্ষক শম্ভূনাথ আর্যের পরলোকগমন Headline Bullet       সভাপতি রুহান সম্পাদক রাজন মির্জাপুরে ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত Headline Bullet       মির্জাপুরে মানবতায় আমরা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত Headline Bullet       জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি কোরবান আলী আর নেই Headline Bullet      

পুলিশ ফাঁড়িতে আসামীর আত্মহত্যা, হত্যার অভিযোগে এলাকাবসীর বিক্ষোভ

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ - ০৯:৫১:৪১ পিএম

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক : টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পুলিশ ফাঁড়িতে হত্যা মামলার আসামী লেবু সিকদার (৫৫) নামের এক ব্যক্তি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। সোমবার রাতে উপজেলার বাঁশতৈল পুলিশ ফাঁড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মনির হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ঠ তদন্ত কমিটি গঠন এবং ঘটনার দিন বাশতৈল পুলিশ ফাড়ির দায়িত্বরত কনস্টেবল সুব্রত সরকারকে টাঙ্গাইল পুলিশ লাইনে স্থানান্তর করা হয়েছে।

লেবু সিকদার বাঁশতৈল গ্রামের বাহার উদ্দিনের ছেলে। সোমবার ওই গ্রামের মফিজুর রহমানের প্রাক্তন স্ত্রী সখিনা আক্তার (৪২) হত্যার সাথে জড়ীত থাকার অভিয়োগে পুলিশ মফিজুর রহমান ও লেবু সিকদারকে গ্রেপ্তার করে।

লেবু সিকদারের মৃত্যুর ঘটনাকে পুলিশি নির্যাতন দাবি করে পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী মঙ্গলবার গোড়াই-সখিপুর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে এবং লেবু সিকদার হত্যার সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিচার দাবি করেন।

জানা গেছে, পাঁচ বছর আগে স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হওয়া সখিনা আক্তার দুই মেয়ে ও এক ছেলে নিয়ে থাকতো। মেয়েদের বিয়ে হওয়া এবং ছেলে বিদেশ থাকায় ছেলের বউ নিয়ে তিনি থাকতেন। ছেলের বউ বাবার বাড়িতে যাওয়ায় রবিবার রাতে সখিনা আক্তার বাড়িতে একাই ছিলেন। রাতের কোন এক সময় কে বা কাহারা সখিনাকে বসত ঘরে ঢুকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে। খবর পেয়ে সোমবার বেলা ১২ টার দিকে বাঁশতৈল ফাড়ি পুলিশ সখিনার মরদেহ উদ্ধার করে। সখিনার ভাই মো. বাদসা বাদী হয়ে মফিজুর রহমান ও লেবু সিকদারসহ অজ্ঞাতনামাদের আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করে।

এই ঘটনায় পুলিশ সখিনার প্রাক্তন স্বামী মফিজুর রহমান ও কথিত পরকীয়া প্রেমীক লেবু সিকদারকে গ্রেপ্তার করে। রাতে গ্রেপ্তারকৃত দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুইজনকে পুলিশ ফাঁড়ির হাজাতখানার দুই কক্ষে রাখা হয। ভোররাত সাড়ে চারটার দিকে লেবু মিয়ার গলায় রশি লাগিয়ে ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপ¯ি’তিতে সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয।

বাঁশতৈল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মনিরুজ্জামান বলেন, খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে পুলিশ ফাঁড়িতে যাই। সেখানে লেবু মিয়ার গলায় রশি পেচানো অব¯’ায় তার মরদেহ দেখতে পাই।
এদিকে বেলা পৌনে একটার দিকে বাশতৈল পুলিশ ফাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে প্রধান ফটকে তালা দেওয়া। ফাড়িতে দায়িত্বরত কারো সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

বেলা দুইটার দিকে লেবু সিকদারের পরিবারের লোকজন এবং বাশতৈল এলাকাবারী গোড়াই-সখিপুর সড়কে টায়ারে আগুন লাগিয়ে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে। এসময় লেবু সিকদারের স্ত্রী আলেয়া বেগম বিলাপ করে বলেন, আমার স্বামীর কোন দোষ নেই। ভাল মানুষ বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে রাতে নির্যাতন করে মেরে ফেলেছে। আমি এই হত্যার বিচার চাই।

পরে বেলা সারে তিনটার দিকে টাঙ্গাইলের সহকারী পুলিশ সুপার সখিপুর সার্কেল রাকিবুর রাজা ঘটনা¯’লে গিয়ে সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দিলে এলাকাবসী অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়।

লেবু সিকদারের ভাতিজা সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমার চাচাকে দিনের বেলায় ফাড়ি পুলিশ সাখাওয়াত হোসেন ও নেছার উদ্দিন ডেকে নিয়ে যায়। মঙ্গলবার সকাল দশটায় চাচার মুত্যুর খবর পাই। কিš‘ ফাড়ি থেকে আমাদেরকে চাচার মৃত্যুর খবর জানানো হয়নি।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম বলেন, লোক লজ্জা ভয়ে লেবু সিকদার আত্মহত্যা করতে পারে।লেবু সিকদারের মরদেহ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যাব¯’া গ্রহন করবেন বলে তিনি জানান।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ‚মি) মো. আমিনুল ইসলাম বুলবুল বলেন, ভোর বেলায় খবর পেয়ে বাশতৈল পুলিশ ফাড়িতে যাই। সেখানে লেবু সিকদারের মরদেহের সুরতহাল করা হয। লেবু সিকদারের গলায় রশির দাগ ছাড়া গায়ের কোথাও কোন আঘাতের চিহ্ন নেই বলে তিনি জানান।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, এ ঘটনায় হাজত খানায় দায়িত্বরত কনস্টেবল সুব্রত সরকারকে টাঙ্গাইল পুলিশ লাইনে ¯’ানান্তর করা হয়েছে। এছাড়া ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনির হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অপর সদস্যরা হলেন, সখিপুর সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার রাকিবুর রাজা ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের পরিদর্শক (অপরাধ) সুব্রত কুমার সাহা । তিন দিনের মধ্যে তাদেরকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: