শিরোনাম
কালিহাতীতে ৬ দোকান ভস্মীভূত Headline Bullet       ভূঞাপুরে বালু উত্তোলন বন্ধে লাঠি ও ঝাঁড়ু– নিয়ে এলাকাবাসীর মানববন্ধন Headline Bullet       কালিহাতীতে স্মরণ সভা অনুষ্ঠি Headline Bullet       প্যাড়াডাইস পাড়ায় দুর্গাপূজার প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপিত হবে Headline Bullet       নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহন নিশ্চিত করতে সর্বাত্বক চেষ্টা করবে সরকার —কৃষিমন্ত্রী Headline Bullet       নিজ উপজেলায় সংবর্ধনায় সিক্ত বিশ্বজয়ী তাকরীম Headline Bullet       টাঙ্গাইলে জেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব জেলা হাজতে  Headline Bullet       টাঙ্গাইলের মির্জাপুর ২৪ জাতের কুকুরের খামার, আমদানির চেয়ে ৫০ ভাগ সাশ্রয় Headline Bullet       কালিহাতীতে শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন পালিত Headline Bullet       পুলিশ ফাঁড়িতে আসামীর আত্মহত্যা, হত্যার অভিযোগে এলাকাবসীর বিক্ষোভ Headline Bullet      

কালিহাতীর মেয়রের বিরুদ্ধে ৪ কোটি টাকার দরপত্র বাগিয়ে নেওয়ার পায়তারা অভিযোগ 

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২০ জুলাই ২০২২ - ০৭:৩২:১১ পিএম

নূর নবী (রবিন) উত্তর টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:
 টাঙ্গাইলের কালিহাতী পৌরসভার ৪ কোটি টাকার টেন্ডার পৌর মেয়র নিজেই তার নিজস্ব লোকজন দিয়ে বাগিয়ে নেওয়ার পায়তারা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ কারনে প্রকৃত ঠিকাদারদের লাইসেন্স নবায়ন না করায় কালিহাতী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী ঠিকাদাররা।
তবে পৌরসভার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন সময়মতো ঠিকাদাররা লাইসেন্স নবায়নের জন্য জমা দিলেও মেয়র স্বাক্ষর না করায় সেগুলো নবায়ন করা হচ্ছে না।
জানা যায়, কালিহাতী পৌরসভা গত ৬ জুলাই বিভিন্ন রাস্তা উন্নয়নের জন্য একটি নোটিশে দুইটি প্যাকেজে দরপত্র আহবান করে। যার আইডি নং ৭১৬২৭৮ এবং ৭১৬২৭৬। আর এ দুইটি প্যাকেজের কাজে ব্যয় ধরা হয় প্রায় ৪ কোটি টাকা। দরপত্র সংগ্রহের শেষ তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে বুধবার (২০ জুলাই)। তবে দরপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে নবায়নকৃত লাইসেন্সধারীরাই দরপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। এ কারনে ২০ জন তালিকাভুক্ত ঠিকাদার তাদের লাইসেন্স নবায়নের জন্য পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে জমা দেন। জমা দেওয়ার পর লাইসেন্স পরিদর্শক সেগুলোর নবায়ন ফি বাবদ দুই হাজার ৩০০ টাকা ব্যাংকে জমা দেন। কিন্তু তারপরও বেকায়দায় পড়েছেন লাইসেন্স নবায়নের জন্য আবেদনকরা ঠিকাদাররা।
ঠিকাদারদের অভিযোগ, তারা সময়মতো লাইসেন্স নবায়নের জন্য পৌরসভায় জমা দিয়েছেন। তাদের টাকাও ব্যাংকে জমা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পৌরসভার মেয়র নুরুনবী সরকার স্বাক্ষর না করায় তারা দরপত্র সংগ্রহ করতে পারছেন না। তারা জানান, পৌরসভার ৩/৪জন নিজস্ব লোকদের লাইসেন্স নবায়ন করেছেন। যাতে ওই ৩/৪জন ছাড়া কেউ দরপত্র সংগ্রহ করতে না পারেন। মেয়র নিজে কাজটি করার জন্য এই পায়তারা শুরু করেছেন।
মেসার্স এস এস ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের সত্তাধিকারী রাজু আহমেদ জানান, পৌর কর্তৃপক্ষ ইপিআর বহিভূর্তভাবে বন্ধের সময় দরপত্র আহবান করেছেন। যাতে কেউ লাইসেন্স নবায়ন বা এতে অংশগ্রহন করতে না পারেন। লাইসেন্স নবায়নের জন্য ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়া থেকে শুরু করে সকল কাজ শেষ হলেও পৌর মেয়র স্বাক্ষর না করায় দরপত্র সংগ্রহ করতে পারছেন না। বুধবার (২০ জুলাই) বিকেলে তিনটা পর্যন্ত দরপত্র সংগ্রহের শেষ সময়।
মেসার্স মবিন এন্টারপ্রাইজের সত্ত¡ধিকারী সুমন রহমান জানান, তিনি ১৮ জুলাই ট্রেড লাইসেন্সের ফি বাবদ কালিহাতী পৌরসভার লাইসেন্স পরিদর্শক মোঃ বাবর হোসেনের কাছে তিন হাজার ৩০০ টাকা এবং লাইসেন্স বই নবায়নের জন্য দুই হাজার ৩০০ টাকা জমা দেন। আজ ২০ জুলাই দরপত্র সংগ্রহ করার শেষ দিন। কিন্তু তার নবায়নকৃত ট্রেড লাইসেন্সে পৌর মেয়র স্বাক্ষর না করায় তিনি দপপত্র সংগ্রহ করতে পারছেন না।
কালিহাতী পৌরসভার লাইসেন্স পরিদর্শক মোঃ বাবর হোসেন জানান, ২০ জন ঠিকাদার তাদের ট্রেড লাইসেন্স নবায়নের জন্য সময়মতই তার কাছে জমা দিয়েছেন। ব্যাংকেও টাকা জমা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া তিনি আর কিছু জানেন না।
কালিহাতী পৌরসভার নির্বাহী কর্মকর্তা সীমান্ত দীপ সূত্রধর  জানান, ২০টি ট্রেড লাইসেন্স নবায়নের জন্য তিনি সকল কাজ শেষ করেছেন। এখন শুধু মেয়র সাহেবের স্বাক্ষর বাকি রয়েছে। তিনি স্বাক্ষর করলেই তারা দরপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।
কালিহাতী পৌরসভার মেয়র মোঃ নুরু নবী সরকার  জানান, দরপত্র আহবানে কোন অনিয়ম হয়নি। ২/৩জন ঠিকাদার শুধু শুধু অভিযোগ করছেন। সকলের ট্রেড লাইসেন্সই নবায়ন করা হয়েছে। তবে ২০ জন ঠিকাদারের ট্রেড লাইসেন্সে স্বাক্ষরের বিষয়ে তিনি বলেন, আমি একটু ডাক্তার দেখানোর জন্য ময়মনসিংহ যাচ্ছি। ফিরে এসে সেগুলো স্বাক্ষর করে দেব।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: