শিরোনাম
ঈদে মহাসড়কে কোনো যানজট হবে না Headline Bullet       বাসাইলে ৭০০ জনের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ উপহার বিতরণ Headline Bullet       স্ত্রীকে হত্যা স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড Headline Bullet       শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন Headline Bullet       দেলদুয়ার আটিয়া ইউনিয়নে পরাজিত নৌকা প্রার্থীর’ উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন Headline Bullet       টাঙ্গাইলে শহীদ জাহাঙ্গীর হোসেনের ৫১তম শাহাদৎবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল Headline Bullet       টাঙ্গাইলে স্কুলছাত্র শিহাব হত্যার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ Headline Bullet       ঘাটাইলে কারখানা নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন Headline Bullet       টাঙ্গাইলে হত্যা মামলায় ৪ জনের যাবজ্জীবন Headline Bullet       শিক্ষার্থী শিহাব হত্যায় সৃষ্টি স্কুলের ৯ শিক্ষক আটক Headline Bullet      

জীবনের নিরাপত্তা ও অপরাধীর বিচার চেয়ে গৃহবধূর সংবাদ সম্মেলন

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২৩ মে ২০২২ - ০৯:৩৫:২২ পিএম

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক : টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার মাইজবাড়ি গ্রামের এক গৃহবধূ ইন্তাজ আলী নামের এক ব্যক্তির কু-প্রস্থাবে রাজি না হওয়ায় শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই ভুক্তভোগী নারী।

সোমবার ২৩(মে) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ অভিযোগ করেন তিনি। এসময় তিনি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও জানিয়েছেন।

ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ লিখিত বক্তব্যে বলেন, প্রতিবেশী সেকান্দার আলীর ছেলে ইন্তাছ আলী প্রায় ৩ বছর যাবত আমাকে নানা ভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। বিষয়টি আমার স্বামী ও এলাকার মাতাব্বরদের জানালে ইন্তাছ আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়। চলতি বছরের গত ১৮ এপ্রিল সকালে আমি নিজ বাড়ির পূর্বপাশে নির্জন স্থানে সবজি বাগানে পানি দিতে গেলে আমাকে একা পেয়ে ধর্ষনের উদ্দেশ্যে ইন্তাজ পিছন থেকে মুখ চেপে ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। পরে জোরপূর্বক শ্লীলতাহানি করার জন্য কাপড় ছিরিয়া ফেলে আমার সাথে ধস্তাধস্তি করতে থাকে। এক পর্যায়ে আমাকে চড়থাপ্পড় মারতে থাকে। এরপর যখন মুখ থেকে হাত সরে যায় তখন আমি চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ইন্তাজ চলে যায়। সে চলে যাওয়ার সময় আমাকে শাসিয়ে যায় যে, আমি যদি কাউকে এই ঘটনা বলি তাহলে আমাকে প্রাণে মেরে ফেলবে। এমতাবস্থায় আমি খুব ঝুঁকিতে রয়েছি। তাই সকলের নিকট সহযোগীতা চাই। এ বিষয়ে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু দমন ট্রাইবুনালে একটি মামলা দায়ের করেছি।

ভুক্তভোগীর স্বামী জানায়, আমি খুব অসহায় দরিদ্র একজন ভ্যান চালক। আমার স্ত্রীর সাথে যে কাজটি হয়েছে তার জন্য উপযুক্ত বিচার চাই।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রতিবেশি তারাব আলী, আমজাদ হোসেনসহ ভুক্তভোগীর স্বামী ও দুই সন্তান।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: