শিরোনাম
টাঙ্গাইলে স্বেচ্ছাসেবী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান গ্রুপ নির্ণয় ও ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত       ওয়ারিশান সনদ বলবৎ রাখার দাবীতে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন       পোড়াবাড়ীতে মা’দুর্গা বিসর্জনের আগেই হিন্দুদের ভালবাসায় সিক্ত মিজান       টাঙ্গাইলে সাহিত্য সংসদ পুরস্কার প্রদান ও স্বরচিত কবিতা পাঠ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত       ৪ নং করটিয়া চেয়ারম্যান পদপার্থী মো.আকবর হোসেন       টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয় ভিক্তিক বইপড়া প্রতিযোগীতায় জাহ্নবী স্কুলের হুমায়রা তৃতীয়       ভূঞাপুরে উপ-নির্বাচনে আ’লীগের ১০ প্রার্থী, বি এন পি ১ ,স্বতন্ত্র ১       বিদেশ পাঠানোর কথা বলে প্রতারণা, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন       টাঙ্গাইলে পেশাজীবী গাড়ি চালকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রশিক্ষণ       বাসাইলে মহিলা চোর চক্রের চার সদস্য আটক      

৪ নং করটিয়া চেয়ারম্যান পদপার্থী মো.আকবর হোসেন

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ০৮ অক্টোবর ২০২১ - ১২:৩৪:০৪ পিএম

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক : মো.আকবর হোসেন পিতা মৃত মোকছেদ আলী গ্রাম জালফৈ মীরের বেতকা করটিয়া ইউনিয়ন টাঙ্গাইল সদর। ১৯৭৭ সালের ২১ জুন জন্মগ্রহণ করেন। ৭ ভাই ৩ বোনের মধ্যে সর্বকনিষ্ট ছোট বেলা থেকেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ ও লালন করে বেড়ে ওঠা ১৯৯২ সালে সরকারী সা’দত কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সদস্য হিসাবে সক্রিয়ভাবে ছাত্র রাজনীতি শুরু করেন ২০০২ সালের ১৫ অক্টোবর বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা উত্তরবঙ্গ সফর কালে তারটিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এক বিশাল জনসভা করেন সভা স্থালের পাশেই জনসভার পূর্বে নিজ হাতে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার পূর্বাঞ্চল আওয়ামীলীগের শাখা নামে আঞ্চলিক শাখা কার্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। পূর্বাঞ্চল আওয়ামীলীগ টাঙ্গাইল সদর উপজেলা শাখার ২০০২ সাল থেকে পরপর তিনবার সম্মেলণের মাধ্যমে সাধারণ সম্পাদক হিসাবে অদ্যাবধি দায়িত্ব পালন করে আসছে। ২০০৪ সালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে ২৬ বছর বয়সে উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মনোনীত হয়ে পরবর্তী সম্মেলনের পূর্ব পর্যন্ত সততা নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার শহিদ দায়িত্ব পালন করেন।২০১৫ সালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের মা্যেমে প্রচার ও প্রকাশণা সম্পাদক মনোনীত হয়ে অধ্য বতি দায়িত্ব পালন করে আসছে।
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ করার কারণে ১৯৯৪ সালে এইচ এস সি ফরম ফিলাপের পর বিএনপি জামাতের নেতারা বিভিন্ন মামলা দিয়ে গ্রামছাড়া করে ফলে র্দীঘদিন পালিয়ে থেকেও পরিক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। ১৯৯৬ বি এন পির ভোটার বিহীন নির্বাচন প্রতিহত করে বিপুল সুনাম অর্জন করেন, ১৯৯৬ সালে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনে সক্রিয়ভাবে কাজ করে ফলে নৌকার প্রার্থী জননেতা আব্দুল মান্নান বিপুল ভোটে করটিয়া ইউনিয়নে জয়লাভ করেন।
২০০১ সালে বিএনপি জামায়াত জোট সরকার কারচুপির মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেই সারা বাংলাদেশের মতো আকবর হোসেনের উপরও আক্রমন করে,যার কারণে ৩ মাস এলাকা ছাড়া হয়ে থাকে।২০০২ সালে জাতীর জনক বঙ্গবন্দুর শাহাদৎ বার্ষিক পালন করতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক সহ নির্যাতনের শিকার হয় ২০১৫ সালের নির্বাচন চলাকালীন সময়ে টাঙ্গাইল জেলা বিএনপি-জামাতের অবরোধ কর্মসূচি পালন করার সময় সেই সময় বিএনপি জামায়াতকর্মীরা প্রাণপ্রিয় নেত্রীর হাতে ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপিত পূর্বাঞ্চল আওয়ামীলীগ টাঙ্গাইল সদর উপজেলা শাখা কার্যালয়ে বোমা হামলা করে,জনাব আকবর হোসেনের সম্মিলিত প্রচেষ্টায়, পরে তারা অবরোধ কর্মসূচি পালনের স্থান পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়।
জনাব আকবর হোসেনের একমাত্র ছেলে সরকারি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ অধ্যায়নরত অবস্থায় টাঙ্গাইল সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয় এবং অত্যন্ত সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছে।
সম্প্রতি মহামারি করোনা ভাইরাসের সময় জনাব আকবর হোসেন ব্যাক্তিগত ভাবে অসহায়দের পাশে থেকে সাধ্যমত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। সমাজসেবক হিসেবেও জনাব আকবর হোসেনের সুনাম টাঙ্গাইল সদর সহ বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে আছে।
তিনি বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প (বিসিক) টাঙ্গাইল শ্রমিক ইউনিয়নের উপদেষ্টা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন,সাবেক উপদেষ্টা টাঙ্গাইল জেলা অটো টেম্পু সি এন জি শ্রমিক ইউনিয়ন ,সাধারণ সম্পাদক নবদিগন্ত যুব সম্প্রদায় জালফৈ টাঙ্গাইল,সাবেক সদস্য জালফৈ দাখিল মাদ্রসা ম্যানেজি কমিটি,সাধারণ সম্পাদক জালফৈ হযরত আলী হাফেজিয়া মাদ্রাসা ম্যানেজিং কমিটি সহ আরো অসংখ্যা প্রতিষ্ঠানের সাথে জরিত আছে জনাব আকবর হোসেন।
করটিয়া ইউনিয়নের সকল নগরিকের পরার্মশ নিয়ে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে করটিয়া ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে ইতি মধ্যে ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে উঠান বৈঠক থেকে শুরু করে হাট বাজারে,চায়ের দোকানে গনসংযোগ করে যাচ্ছেন জনাব আকবর হোসেন।
করটিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন জনসাধারণের সাথে কথা বলে যানা যায়,আকবর হোসেন একজন নিস্বার্থ সমাজ সেবক এবং আওয়ামীলীগ কর্মি অত্যান্ত ভালো মানুষ তিনি যে কোন বিষয় নিয়ে তার কাছে গেলে সাধ্যমত সহযোগিতা ও নিজে সাথে থেকে সে বিপদ থেকে উদ্ধার করে দেন। আগামী নির্বাচনে আমরা সাধারণ জনগন জোর দাবি করছি জনাব আকবর হোসেনকে যেন দলীয় নমিনেশন দিয়ে করটিয়া বাসীর খেদমত করার সুযোগ দিবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: