শিরোনাম
জেলায় নতুন করে ১৩জন করোনায় আক্রান্ত       টাঙ্গাইল যাত্রীবাহী বাস ট্রাকের সংঘর্ষে ৬ জন নিহত       পৌরনির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ে টাঙ্গাইলে আওয়ামী লীগের সভা       টাংগাইলে জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উদযাপিত       আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ফারুক       জেলায় নতুন করে ১০জন করোনায় আক্রান্ত       টাঙ্গাইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হত্যা মামলায় সাবেক মেয়র মুক্তির জামিন নামঞ্জুর       টাঙ্গাইলে নতুন করে ২জন করোনায় আক্রান্ত       কালিহাতীতে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার উদ্যোগে হেলথ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত       টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ১০ ডিসেম্বর উদ্বোধন      

টাঙ্গাইলে ইরফান সেলিমের সহযোগী দিপু গ্রেপ্তার

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২৭ অক্টোবর ২০২০ - ০৬:৩৫:৩৪ পিএম

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক : নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহম্মেদ খান মারধরের ঘটনায় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিমের সহযোগী এবি সিদ্দিক ওরফে দিপুকে (৫২) টাঙ্গাইল থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) ভোর রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি হাজী সেলিমের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান মদিনা গ্রæপের প্রটোকল অফিসার।

এলাকাবাসী জানায়, গ্রেপ্তারকৃত দিপু টাঙ্গাইল শহরের আকুর টাকুর পাড়ার শ্রমিক নেতা মৃত ভোলা মিয়ার বড় ছেলে। তারা দুই ভাই তিন বোন। এবি সিদ্দিক ওরফে দিপু টাঙ্গাইল শহরের বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৮৫ সালে এসএসসি পাস করেন। পরে ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৮৭ সালে এইচএসসি পাস করেন।

১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে দিপু দেশের বাইরে চলে যান। দীর্ঘদিন বিদেশে থাকার পর ২০০৮ সালে আওয়ামীলীগ সরকার গঠন করলে তিনি দেশে ফিরে এসে টাঙ্গাইল শহরের ভিক্টোরিয়া রোডে ট্রাভেল এজেন্সী খোলেন। ট্রাভেল এজেন্সীর ব্যবসায় সুবিধা করতে না পেরে তিনি হাজী সেলিমের বডিগার্ড হিসেবে চাকুরি নিয়ে ঢাকায় চলে যান।

প্রসঙ্গত, সোমবার (২৬ অক্টোবর) এ মামলায় গ্রেপ্তার হন ইরফান সেলিম, তার দেহরক্ষী মো. জাহিদ ও গাড়িচালক মিজানুর রহমান। ইরফান ও তার তিন সহযোগীর বিরুদ্ধে সোমবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় মামলাটি করেন নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহম্মেদ খান। ওই মামলায় মদিনা গ্রæপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক ওরফে দিপু ৩ নম্বর আসামি ছিলেন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: