শিরোনাম
টাঙ্গাইলে নতুন করে ২জন করোনায় আক্রান্ত       কালিহাতীতে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার উদ্যোগে হেলথ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত       টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ১০ ডিসেম্বর উদ্বোধন       সাংবাদিক এহসানুল হক শাহীনের ৪র্থ মৃত্যু বার্ষিকী পালিত       কালিহাতীতে ট্রাক-মাইক্রোবাস সংঘর্ষে নিহত ২       টাঙ্গাইলে লৌহজং নদ দখলমুক্ত দিবস পালিত       সভাপতি মামুন, সম্পাদক মোফিজুর রহমান খান বাবু ও কোষাধ্যক্ষ মন্টু       টাঙ্গাইলে সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত       বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু নির্মানের ভিত্তিফলক উদ্বোধন       কর্মবিরতিতে ইউএনও-এসিল্যান্ড অফিসের কর্মচারীরা      

টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২৫ অক্টোবর ২০২০ - ০৪:৫৭:০৫ পিএম

সোনলী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক : টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার উত্তর বিলডগা গ্রামের অপহৃত কন্যাকে উদ্ধার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবার। রোববার সকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে এ সংবাদসম্মেলন করা হয়।
গোপালপুরের মুক্তিযোদ্ধা সাহেব আলী খান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তার নাতনি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণীর ছাত্রী রিপা আক্তার (১৪) গত ১৬ আগস্ট রাত সোয়া ১১টার দিকে পানি ব্যবহারের জন্য বাড়ির দক্ষিণপাশে টিউবয়েলের কাছে যায়। সে সময় একই উপজেলার চতিলা গ্রামের সাকিল হাসান, হাছিনা বেগম, শাফী উদ্দিন, মো. শফিকুল, রেহেনা বেগম ও মো. সোলায়মান তাকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখোঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তার নাতনিকে উদ্ধারের জন্য এলাকার মাতাব্বরদের কাছে গেলে তারা আশ্বাস দিলেও পরবর্তীতে নানাভাবে তালবাহানা করতে থাকে। তাদের কাছ থেকে কোন সুরাহা না পেয়ে গত ২১ আগস্ট গোপালপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ আসামী সোলায়মানকে গ্রেফতার করে। সে পুলিশকে জানায়, সাকিল হাসানসহ আসামীরা রিপাকে অপহরণ গাজীপুরের অজ্ঞাত স্থানে রেখেছে। এরপরও ঢাকার দক্ষিণখান থানার আটিপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির মোড় এলাকা থেকে ওই মামলার আসামী হাছিনা বেগম ও শাফী উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। তারাও রিপাকে অপহরণের কথা স্বীকার করে। গত ১২ অক্টোবর অপর আসামী শফিকুলকেও গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপরও রিপাকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

রিপা আক্তারের পিতা রফিকুল ইসলাম খান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আসামীরা নানাভাবে তাকে ও তার পরিবারের লোকজনকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। তারা যে কোন সময় তার পরিবারের সদস্যদের উপর হামলা করতে পারে বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি। মেয়েকে উদ্ধারের জন্য তিনি প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।

মুক্তিযোদ্ধা সাহেব আলী খান বলেন, দেড় মাস হলেও নাতনি রিপার কোন সন্ধানই পাওয়া যাচ্ছে না। সে বেঁচে আছে নাকি আসামীরা তাকে মেরে ফেলেছে তাও জানি না। আসামী গ্রেফতার হলেও পুলিশ এতদিনেও আমার নাতনিকে উদ্ধার করতে পারেনি। আমরা রিপার সন্ধান চাই। এব্যাপারে চতিলা গ্রামের শাকিল হাস নের পরিবারের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে ও তাদের কাউকেই খুজে পাওয়া যায়নি

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: