শিরোনাম
টাঙ্গাইল স্বেচ্ছাসেবী ফাউন্ডেশনের ১ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন       কলেজ শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে মানববন্ধন       টাঙ্গাইলের পোড়াবাড়ী ইউনিয়নের বন্যার্ত অসহায় ক্ষুধার্ত মানুষের পাশে বি এন পি নেতা ফরহাদ ইকবাল       র‌্যাব ও ইপিলিয়ন যৌথ উদ্যোগে সিরাজগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ       মির্জাপুরে নেশার টাকার জন্য ছেলের হাতে মা খুন       টাঙ্গাইলে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে আর্থিক জরিমানা ও মাস্ক বিতরণ       ঈদুল আজহা উপলক্ষে টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজট নিরসনে মাঠে থাকবে ৬০০ পুলিশ       টাঙ্গাইলে ডিসি’সহ নতুন করে ৫২ জন করোনায় আক্রান্ত, মোট আক্রান্ত- ১৫১৫       টাঙ্গাইলে বিএসইও এর উদ্যোগে তিন শতাধিক বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ       টাঙ্গাইলে মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার ১টি মোটর সাইকেল উদ্ধার      

বদলে যাচ্ছে মেম্বার চেয়ারম্যান পদবী

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ১৮ জুন ২০২০ - ০৮:৪৯:২০ পিএম

সোনালী বাংরাদেশ নিউজ ডেস্ক : স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের পদবী বাংলায় করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। একইসাথে ইংরেজি নাম আছে এমন পরিষদের নামও বাংলায় রূপান্তর করা হচ্ছে। রাজনৈতিক দলগুলোর নিবন্ধন আইন-২০২০-এ এসব বিধান করার প্রস্তাব করেছে কমিশন। খসড়া আইনটি নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে রাজনৈতিক দল ও জনগণের কাছ থেকে মতামত চাওয়া হয়েছে।

রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন বিধিমালা এতোদিন গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২-এর একটি অংশ ছিলো। তবে এবার রাজনৈতিক দলসমূহের নিবন্ধন আইন-২০২০ নামে স্বতন্ত্র আইন করার উদ্যোগ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। প্রস্তাবিত রাজনৈতিক দলসমূহের নিবন্ধন আইন- ২০২০’র খসড়ায় ইউনিয়ন পরিষদকে পল্লি পরিষদ, পৌরসভাকে নগর সভা ও সিটি কর্পোরেশনকে মহানগর সভা করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া, ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে প্রধান, ভাইস চেয়ারম্যানকে উপপ্রধান; সিটি কর্পোরেশনের মেয়রকে মহানগর সভা আধিকারিক বা মহানগরপতি এবং পৌরসভার মেয়রকে পুরাধ্যক্ষ বা নগরপতি; সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার কাউন্সিলরকে সদস্য বা পরিষদ, সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার ওয়ার্ড কে মহল্লা এবং ইউনিয়ন পারিষদের ক্ষেত্রে এলাকা শব্দের দ্বারা প্রতিস্থাপন করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

আরপিও অনুযায়ী ২০২০ সালের মধ্যে সব রাজনৈতিক দলের সকল পর্যায়ের কমিটিতে নারী সদস্য ৩৩ শতাংশ থাকার কথা ছিলো। প্রস্তাবিত আইনে কোন সময়কাল উল্লেখ না করে প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলের সকল পর্যায়ের কমিটিতে ৩৩ ভাগ পদ নারীদের জন্য সংরক্ষণ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটwww.ecs.gov.bd তে আইনের খসড়া প্রকাশ করা হয়েছে। প্রস্তাবিত আইনের বিষয়ে রাজনৈতিক দল ও জনগণের মতামত চাওয়া হয়েছে। ৭ জুলাই পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের জ্যেষ্ঠ সচিবের ইমেইল secretary@ecs.gov.bd ঠিকানায় পাঠানো যাবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: