শিরোনাম
ঘাটাইলে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন       ঘাটাইলে সাংবাদিকের ওপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন       এলেঙ্গায় বসন্তবরণ উদ্যাপিত       দেলদুয়ারে জনতার মুখোমুখি ও শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠিত       টাঙ্গাইলে প্রতিবন্ধী শিশু-কিশোরদের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত       টাঙ্গাইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপিকে সংবর্ধনা       মাভাবিপ্রবি তারুণ্যের উচ্ছাস সেচ্ছাসেবী সংগঠনের গাছ রোপন কর্মসুচি       টাঙ্গাইলে দশ দিনব্যাপী বিসিক শিল্প মেলার উদ্বোধন       টাঙ্গাইলে শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচী       টাঙ্গাইলে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সংরক্ষনে বধ্যভুমি সংস্কার ও স্মৃতিস্তম্ভ নির্মান      

টাঙ্গাইলের রেল সেতুগুলোতে লোহার নাটের পরিবর্তে বাঁশের গোজ

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ০২ জুলাই ২০১৯ - ০৫:৩৯:১৯ পিএম

সোনলীি বাংলাদশ নউিজ ডস্কে :টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব হতে জয়দেবপুর পর্যন্ত রেললাইনের বেশ কিছু সেতু ঝুঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। রেলসেতুতে দেখা গেছে লোহার বোল্টুর পরিবর্তে বাঁশের গোজ ও কাঠের ব্যবহার। এছাড়া সেতুর কাঠের তৈরি স্লিপার নষ্ট হয়ে গেছে। এতে ঝুঁকিতে রয়েছে সেতুগুলো।

ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব রেললাইনের কালিহাতী উপজেলার জোকারচর রেলসেতুতে গিয়ে দেখা গেছে, সেতুর সাথে রেললাইনের আটকানো ক্লিপ বেশ কিছু স্থানে নেই। কিন্তু সেখানে লোহার বোল্টু বা নাট দিয়ে আটকানোর কথা থাকলেও বাঁশের গোজ দিয়ে আটকানো হয়েছে। আবার অনেকস্থানে লোহার বোল্টু পাওয়া যায়নি। এছাড়া সেতুর অনেক কাঠের স্লিপার নষ্ট হয়ে গেছে। ফলে লোহার নাটগুলো নাড়াচাড়া বা হাত দিয়ে টেনে তোলা যাচ্ছে। সেতুর একপাশে লোহার পাতগুলো খুলে রয়েছে। শুধু জোকারচর নয় ওই রেললাইনের বেশকিছু সেতুতে এমনচিত্র দেখা গেছে।

জয়দেবপুর রেলস্টেশন সূত্রে জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব হতে জয়দেবপুর পর্যন্ত রেললাইনে ১৩২টি ছোট-বড় সেতু রয়েছে। যা ১৯৯৮ সালে এগুলো নির্মাণ করা হয়। এরপর আর সেতুতে কোন সংস্কার কাজ শুরু হয়নি। এরমধ্যে গত ২০১৭ সালে ২০ আগষ্ট টাঙ্গাইলের পুংলী রেলসেতুর এপ্রোস ধসে পড়ে। এতে অল্পের জন্য উত্তরবঙ্গ থেকে আসা ঢাকাগামী ট্রেন দূর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায়। এরপর ওই সেতুর সংস্কার কাজ পুনরায় রেল চলাচল শুরু করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি সেই পুংলী রেলসেতুর দুইপাশের এপ্রোস সংস্কার কাজ শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ।

সর্বশেষ
%d bloggers like this: