শিরোনাম
গোপালপুরে প্রতিবন্ধী নারীর গর্ভপাত করাতে প্রাণনাশের হুমকি Headline Bullet       টাঙ্গাইলে ডিসির পাশে মুক্তিযোদ্ধা ও রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের সম্মানে আসন Headline Bullet       টাঙ্গাইলে নবাগত জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন হায়দারের যোগদান Headline Bullet       ঘাটাইলে পুকুর খননের নামে চলছে লাল মাটি কাটার মহাৎসব Headline Bullet       সাংবাদিকদের ব্লেজার উপহার দিলেন এমপি শুভ Headline Bullet       মির্জাপুরে চন্দ্রবিন্দু স্কুল এন্ড কলেজ উদ্যোগে যাদু প্রদর্শনী অনুষ্ঠান। Headline Bullet       নাগরপুরে কৃষকের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ Headline Bullet       মির্জাপুরে যানজট নিরসনে মতবিনিময় সভা Headline Bullet       মধুপুরে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে আচিক মিচিক সোসাইটির মানববন্ধন Headline Bullet       বাসাইলের রাশড়াতে রাস্তার কাজের উদ্বোধন Headline Bullet      

টাঙ্গাইলে রোজাদার রিক্সাচালককে পেটানোর অভিযোগে পুলিশের এক গাড়ী চালক প্রত্যাহার

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ১৪ মে ২০১৯ - ১২:২৩:২৭ পিএম


সোনালী বাংলাদেশ নিউজ ডেস্ক ঃ টাঙ্গাইলে রোজাদার এক রিক্সাচালককে পেটানোর অভিযোগে পুলিশের এক গাড়ি চালককে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। অভিযুক্ত গাড়ি চালকের নাম আবুল খায়ের।
গত সোমবার (১৩ মে) সকালে শহরের আকুর-টাকুর পাড়া এলাকায় টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সামনে এক রিক্সাচালককে মারধর করার অভিযোগে পুলিশের ভাবমূর্তি রক্ষার্থে পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়সহ জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ রাতেই এই সিদ্ধান্ত নেন।
ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শহরের স্টেডিয়াম মার্কেট থেকে রিক্সাটি মেইন রোডে আসে এবং পুলিশের গাড়িটি সদর থানা থেকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার সময় পুলিশের গাড়িটির সাথে রিক্সাটি লেগে যায়। এমন সময় ড্রাইভার নেমে এসে রিক্সাচালককে লাঠি দিয়ে তার হাতে আঘাত করলে হাতটি নীলাফুলা জখম হয় এবং রিক্সা চালক চিৎকার করে কাঁদতে থাকে। এই সময় ড্রাইভার গাড়ি নিয়ে চলে যায়।
আরো জানা যায়, রিক্সাচালক সদর উপজেলার রসুলপুর গ্রামের মোখছেদ আলীর ছেলে সেলিম মিয়া (৩০) বিদেশে চাকুরী করেও তিনি সুবিধা করতে না পারায় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। রিক্সা চালকের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ইঞ্জিন চালিত রিক্সা মোড় ঘোরানোর সময় গতিটা একটু বেশী ছিলো। তাই লেগে গেছে।
এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আহাদুজ্জামান মিয়া জানান, চালক আবুল খায়ের যে কাজটি করেছে তা পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হওয়ার মত ও দুঃখজনক ঘটনা। তাই চালককে লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এসময় তিনি আরো জানান, বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে তা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। পরে রাতেই তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করে নেয়া হয়। এছাড়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মাসুদ মুনীরকে প্রধান করে একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর চালকের বিয়ষে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: