শিরোনাম
লায়ন্স ক্লাবের আয়োজনে ঘাটাইলে শোকাবহ আগষ্টের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত Headline Bullet       টাঙ্গাইলে চোলাই মদসহ আটক ১ Headline Bullet       বাসাইলে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে পৌর কমিশনারের সাংবাদিক সম্মেলন Headline Bullet       বাসাইল সাব-রেজিস্ট্রারের বদলীর দাবিতে সংবাদ সম্মেলন Headline Bullet       সিরিজ বোমা হামলায় জড়িতদের বিচারের দাবিতে টাঙ্গাইলে আওয়ামীলীগের বিক্ষোভ মিছিল Headline Bullet       অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যান হেকমতের সংবাদ সম্মেলন Headline Bullet       টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে স্কুলছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার Headline Bullet       টাঙ্গাইলে বীরমুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ নুরুল ইসলাম আর নেই Headline Bullet       টাঙ্গাইলে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ Headline Bullet       টাঙ্গাইলে সাংবাদিকদের মাঝে অনুদানের চেক প্রদান Headline Bullet      

টাঙ্গাইলে ক্যাপিটাল হসপিটাল সিলগালা

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ৩০ এপ্রিল ২০১৯ - ০২:২৪:১৪ পিএম


সোনালী বাংলদেশ নিউজ ডেস্ক ঃ
 ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে টাঙ্গাইল শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতাল সিলগালা করে দিয়েছেন। এছাড়া অপর আরেকটি হাসপাতালকে সংশোধনের জন্য চারদিনের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। সোমবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

অভিযানে টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. শরিফ হোসেন খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, টাঙ্গাইল শহরের কলেজ মোড়ে অবস্থিত টাঙ্গাইল ক্লিনিক অ্যান্ড হসপিটাল এবং মেইন রোডস্থ ক্যাপিটাল হসপিটালে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালান। এ দুটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিলো তারা ভুয়া ডাক্তার দিয়ে রোগীদের চিকিৎসা করান। সম্প্রতি অভিযোগের ভিত্তিতে হাসপাতাল থেকে এক ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযান শেষে ক্যাপিটাল হসপিটালের সকল কার্যক্রম স্থগিত করে দেয়া হয়েছে।

এছাড়া সংশোধনের জন্য টাঙ্গাইল ক্লিনিক অ্যান্ড হসপিটাল কর্তৃপক্ষকে চারদিনের সময় বেধে দেয়া হয়েছে। যদি তারা সংশোধন হতে না পারে তাহলে তাদের সকল কার্যক্রম স্থগিত এবং সিলগালা করে দেয়া হবে।

পর্যায়ক্রমে শহরের অন্য হাসপাতালগুলোতেও অভিযান অব্যহত থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন বলেন, এসব ক্লিনিকের সেবার মান খুব খারাপ। সাধারণ মানুষ সেবা নিতে এসে নানাভাবে হয়রানি হচ্ছে। এখানে কোনো সুযোগ-সুবিধা নেই। অভিযান চলাকালে যারা দায়িত্বে ছিল তারা পালিয়েছে।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: