শিরোনাম
বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে টাঙ্গাইল বালক দল চ্যাম্পিয়ন Headline Bullet       কালিহাতীর প্রাক্তন শিক্ষক শম্ভূনাথ আর্যের পরলোকগমন Headline Bullet       সভাপতি রুহান সম্পাদক রাজন মির্জাপুরে ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত Headline Bullet       মির্জাপুরে মানবতায় আমরা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত Headline Bullet       জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি কোরবান আলী আর নেই Headline Bullet       ঔষুধসহ ভেজাল খাবারের প্রতিবাদে সোচ্চার ক্যাব Headline Bullet       মির্জাপুরে মহেড়া পেপার মিলের পঞ্চম বর্ষপুর্তি Headline Bullet       মির্জাপুর শীতার্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ Headline Bullet       মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নিহত Headline Bullet       যাঁরা নির্বাচন কমিশনার হন তাঁদের মেরুদণ্ড নাই, সখীপুরে জনসভায় কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম Headline Bullet      

১ হাজার টাকা নিয়ে বিবাদে, ৩০ হাজারে খুনি ভাড়া করে খুন

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২৪ মে ২০১৮ - ০২:২৬:৩৩ পিএম

বিবাদের শুরুটা হয়েছিল ২০১৬ সালে এক হাজার টাকা নিয়ে। সেই বিবাদ গিয়ে ঠেকল খুনোখুনিতে। খুনি ভাড়া হয়েছিল ৩০ হাজার টাকায়। পুলিশ বলছে, তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বিবাদের রেশ ধরে গত শনিবার গাড়ি চালক রূপচান আলীকে (৩০) হত্যা করা হয়।

গত শনিবার রাতে উত্তরার ১০ নম্বর সেক্টরের স্লুইসগেট এলাকায় রূপচানকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়। উত্তরা পশ্চিম থানা-পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের স্ত্রী শিরিন বেগম বলেন, রূপচান উত্তরা এলাকায় ব্যক্তিগত গাড়ি চালাতেন। লাইসেন্স করার টাকা নিয়ে এক ব্যক্তির সঙ্গে বিরোধের জেরে এ হত্যাকাণ্ড বলে তিনি মনে করেন। থানা-পুলিশের পাশাপাশি মামলাটি তদন্ত করে ডিবি পুলিশ।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার কায়সার রিজভী কোরায়েশী প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা রূপচানের হত্যাকারীদের শনাক্ত করেছেন। হত্যার ঘটনা উদঘাটনের দ্বারপ্রান্তে রয়েছেন তাঁরা। ঘটনার শুরুটা ছিল তুচ্ছ একটি ঘটনা নিয়ে।

পুলিশ ও স্বজনদের সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে নিজের শ্যালকের লাইসেন্স করার জন্য হাবিব নামের এক ব্যক্তিকে দুই হাজার টাকা অগ্রিম দিয়েছিলেন রূপচান। কথামতো রূপচানের শ্যালককে বিআরটিএতে গাড়ি চালনা পরীক্ষা দেওয়ানোর জন্য নিয়ে যান হাবিব। কাগজপত্রে সাবালক হলেও দেখতে কমবয়সী হওয়ায় তাঁর লাইসেন্সের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হয়। এ নিয়ে রূপচানের সঙ্গে হাবিবের বিবাদ শুরু হয়। রূপচান টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকেন, আর হাবিব উল্টো তাঁকে আগে থেকেই শ্যালকের বয়স না জানানোর জন্য রূপচানকে গালমন্দ করতে থাকেন। পরে ফয়সালা হয় হাবিব এক হাজার টাকা ফেরত দেবেন।

পুলিশ জানায়, কিন্তু বিষয়টি মেনে নেননি রূপচান। ২০১৬ সালের শেষ দিকে হাবিবকে বাগে পেয়ে ছুরি মেরে বসেন রূপচান। হাবিব হাতে গুরুতর আঘাত পান, হাতের কয়েকটি রক্তনালি কেটে যায়। আঘাত পাওয়ার পর হাবিবের হাত শুকিয়ে যেতে থাকে, অনেক চিকিৎসার পর তিনি এখন সেই হাতের দুটি আঙুল নাড়াতে সক্ষম হন। বিষয়টি নিয়ে মামলা করে কোনো ফল না পেয়ে নিজেই প্রতিশোধ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন হাবিব। রূপচান ও তাঁর পরিবারের সঙ্গে আবারও সম্পর্ক গড়ে তোলেন হাবিব।

পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, রূপচানেরও একটি হাত অচল করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেন হাবিব। রূপচানকে ছুরি মারার জন্য ৩০ হাজার টাকায় দুই তরুণের সঙ্গে চুক্তি হয়। কথামতো শনিবার রাতে দুই তরুণ উত্তরা ১০ নম্বরের স্লুইসগেট এলাকায় রূপচানকে ছুরিকাঘাত করলে তাঁর মৃত্যু হয়।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: