শিরোনাম
বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে টাঙ্গাইল বালক দল চ্যাম্পিয়ন Headline Bullet       কালিহাতীর প্রাক্তন শিক্ষক শম্ভূনাথ আর্যের পরলোকগমন Headline Bullet       সভাপতি রুহান সম্পাদক রাজন মির্জাপুরে ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত Headline Bullet       মির্জাপুরে মানবতায় আমরা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত Headline Bullet       জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি কোরবান আলী আর নেই Headline Bullet       ঔষুধসহ ভেজাল খাবারের প্রতিবাদে সোচ্চার ক্যাব Headline Bullet       মির্জাপুরে মহেড়া পেপার মিলের পঞ্চম বর্ষপুর্তি Headline Bullet       মির্জাপুর শীতার্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ Headline Bullet       মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নিহত Headline Bullet       যাঁরা নির্বাচন কমিশনার হন তাঁদের মেরুদণ্ড নাই, সখীপুরে জনসভায় কাদের সিদ্দিকী বীরউত্তম Headline Bullet      

টাঙ্গাইলে এসএসসি পরীক্ষায় কৃতকার্য সাত শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ০৭ মে ২০১৮ - ০৩:৫৩:২৭ পিএম

টাঙ্গাইলে এসএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট খারাপ হওয়ায় কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে সাতজন শিক্ষার্থী। শনিবার দুপুরে এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর টাঙ্গাইল সদর, বাসাইল ও ভূঞাপুর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। পরে আহত শিক্ষার্থীদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহতরা হলো টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার পৌলি গ্রামের নাসিরের ছেলে নাহিদ, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ঢালান শিবপুর এলাকার মো. খোরশেদ মিয়ার মেয়ে মিনা আক্তার, ভূঞাপুর উপজেলার নিকরাইলের হামিদুর রহমানের মেয়ে নিরা, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার ছিটকীবাড়ী এলাকার হাসমত আলীর মেয়ে হালিমা, বাসাইল উপজেলার কাউলজানী ইউনিয়নের আতাহার আলীর মেয়ে বর্ণা আক্তার, টাঙ্গাইল সদর উপজেলার পোড়াবাড়ী ইউনিয়নের আজাহার ইসলামের মেয়ে অন্তরা ও টাঙ্গাইল পৌর এলাকার আলোয়া ভবানীর হযরত আলীর মেয়ে রাখি।

আহতদের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আজ পরীক্ষার রেজাল্ট বের হবে সবাই অনেক খুশি ছিলো। কিন্তু রেজাল্ট ভালো না হওয়ায় শিক্ষার্থীরা মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ে। আর অনেকটা অভিমান করেই তারা কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে আমরা তাদের তাড়াতাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করি। বর্তমানে তারা সুস্থ্য আছে।

টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, এসএসসি পরীক্ষার রেজাল্ট বের হওয়ার পর থেকেই একে একে সাতজন শিক্ষার্থী আমাদের হাসপাতালে ভর্তি হয়। এরমধ্যে একজন ছেলে আর বাকি সবাই মেয়ে। তারা সকলেই কীটনাশক খেয়েছিলো। বর্তমানে সবাই শঙ্কা মুক্ত।

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: