শিরোনাম
অপপ্রচারের বিরুদ্ধে ইউপি চেয়ারম্যান হেকমতের সংবাদ সম্মেলন Headline Bullet       টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে স্কুলছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার Headline Bullet       টাঙ্গাইলে বীরমুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ নুরুল ইসলাম আর নেই Headline Bullet       টাঙ্গাইলে লাইব্রেরিয়ান নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ Headline Bullet       টাঙ্গাইলে সাংবাদিকদের মাঝে অনুদানের চেক প্রদান Headline Bullet       টাঙ্গাইলে সদর থানা ও শহর বিএনপির আহবায়ক কমিটির আনন্দ Headline Bullet       শিহাব হত্যা মামলায় ৪ আসামির আত্মসমর্পণ, জামিন নামঞ্জুর Headline Bullet       বাসাইলে ৪টি ড্রেজার মেশিন ধ্বংস Headline Bullet       তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে জাতীয় পার্টির বিক্ষোভ ও সমাবেশ Headline Bullet       চলন্ত বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণে : মূল পরিকল্পনাকারীসহ ১০ ডাকাত গ্রেফতার Headline Bullet      

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ভিজিএফ কার্ডের কথা বলে গৃহবধুকে ধর্ষন

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ১৮ এপ্রিল ২০১৮ - ০৩:১৬:৩২ পিএম

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ভিজিএফ কার্ড দেয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গৃহ্বধুকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মির্জাপুর উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের কোর্ট বহুরিয়া গ্রামে। এ ঘটনায় ধর্ষিত গৃহবধু বাদী হয়ে ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলী (৪০) বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষনের মামলা করেছেন। মামলা নম্বর ১৩৬, তারিখ ১৫ এপ্রিল ২০১৮।

মামলার বিবরণ জানা গেছে, গত ১১ এপ্রিল রাত আনুমানিক সাড়ে নয়টার দিকে বহুরিয়া ইউনিয়নের কোর্ট বহুরিয়া গ্রামের আমিরুদ্দিনের অসহায় স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে (৩৫) ভিজিএফ কার্ড দেয়ার কথা বলে বহুরিয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড মেম্বার ইদ্রিস আলী বাড়ির পূর্বপাশে নদীর ধারে ডেকে নেয়। পরে সেখানে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় তিনি আর্তচিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ধর্ষক ইদ্রিস আলী পালিয়ে যায়।

ঘটনার পরদিন ১২ এপ্রিল সকালে গৃহবধু ফাতেমা বেগম মির্জাপুর থানায় এসে মেম্বারের বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ দায়ের করতে চাইলে পুলিশ তা গ্রহণ না করে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে তিনি টাঙ্গাইল আদালতে মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে করা ধর্ষনের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অভিযোগকারীর সঙ্গে তার শরিকী সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। সেই বিরোধ মীসাংসায় তিনি সন্তোষ্ট হতে না পেরে তার বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ করেছেন বলে তিনি জানান।

মির্জাপুর থানা অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক বলেন আমার জানামতে মির্জাপুর থানায় ধর্ষনের অভিযোগ করতে ওই মহিলা আসেন নি। আসলে অবশ্যই অভিযোগ নিয়ে যথাযথ আইনী প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হতো বলে তিনি জানান।

 

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: