টাঙ্গাইলে ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা মেয়েকে হত্যা করেছে তার প্রেমিক

সোনালী বাংলাদেশ নিউজ
সম্পাদনাঃ ২৯ মার্চ ২০১৮ - ০৩:৪০:৪৮ পিএম

চেতনা নিউজ ডেস্ক:টাঙ্গাইলে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বাকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে কথিত প্রেমিকের বিরুদ্ধে।গত সোমবার দুপুরে ঘাটাইলের কুড়মুসি এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে কোলাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী তুলির সঙ্গে স্থানীয় রিপন প্রেমের অভিনয় করে আসছিল। এক পর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হলে তিন মাস পর গ্রামে শালিস বসে। এসময় তাকে বিয়ে করতে বলা হলে রিপনের বাবা ৫ লাখ টাকার যৌতুক দাবি করেন। যৌতুক দিতে না চাইলে রোববার রাতে তুলিকে কৌশলে নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে যায় রিপন। পরে তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে দিয়ে আত্মহত্যার প্রচার চালানো হয় বলে অভিযোগ করেন স্বজনরা। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত রিপন পলাতক রয়েছে। এলাকাবাসী বলেন, ‘এক বছর ধরে ছেলেটার সঙ্গে মেয়েটার সম্পর্ক ছিলো। পারিবারকিভাবে ঘটনাটা মিমাংসার চেষ্টা করা হয়েছে। এই ঘটনায় অপরাধীদের আমরা বিচার চাই।’ টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় বলেন, ‘বিষয়টা নিয়ে এখনও কোনো অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে যথাযথ ব্যবস্থা নেব।’

এ বিভাগের জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ
জনপ্রিয় খবর
%d bloggers like this: